অদ্ভুত এক ক্রিকেট ম্যাচ দিয়ে ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকায়

0
249

তিন দলের অংশগ্রহণে এক ম্যাচ! এমন নিয়মে কোন ম্যাচ দেখা যায়নি এখন পর্যন্ত ক্রিকেট কিংবা ফুটবলে। তবে তাই এবার সত্যি হতে যাচ্ছে। মজার মজার আরো নানা নিয়ম নিয়ে ‘থ্রিটিসি’ নামে অদ্ভুত এক ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করে ভিন্ন রুপে ক্রিকেট ফিরতে যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকায়।

ম্যাচটি মাঠে গড়ানোর কথা ছিল ২৭ জুন। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার অনুমতি না দেওয়াতে স্থগিত করতে হয় তখন। তবে সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রীড়া মন্ত্রী নাথি থেওথা ক্রিকেটারদের মাঠে নেমে অনুশীলনের জন্য সবুজ সংকেত দিয়েছে। আর তাই টুর্নামেন্টটি আয়োজনের নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে সিএসএ। বুধবার ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী জ্যাকস পল জানিয়েছে, আগামী ১৮ জুলাই নেলসন ম্যান্ডেলা ইন্টারন্যাশনাল ডে’তে মাঠে গড়াবে এই সলিডারিটি কাপ। এই দিনেই জন্মগ্রহণ করেন দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদবিরোধী অবিসংবাদিত নেতা ও সাবেক প্রেসিডেন্ট নেলসন মেন্ডেলা। মূলত এজন্যই দিনটিকে বেছে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার।

সলিডারিটি কাপে সম্পূর্ণ নতুন এক ফরম্যাটের সঙ্গে দর্শকদের পরিচয় করিয়ে দিতে চাইছে প্রোটিয়া ক্রিকেট বোর্ড। তিনটি দল নিয়ে সেঞ্চুরিয়ানে অনুষ্ঠিত হবে এই টুর্নামেন্টটি। যেখানে ৩৬ ওভারের ম্যাচকে দুই ভাগে ভাগ করে খেলা হবে। টুর্নামেন্টে খেলা তিন দলে খেলোয়াড় থাকবে ৮ জন করে। প্রতি দল একে অন্যের বিপক্ষে ১২ ওভার করে ব্যাট করবে। ম্যাচে একজন বোলার সর্বোচ্চ ৩ ওভার করে বল করতে পারবে।

ম্যাচের প্রথমার্ধে যে দলের রান বেশি ছিল তারা দ্বিতীয়ার্ধে আগে ব্যাট করবে। নতুন ফরম্যাটে নতুন সংযোজন হিসেবে আসছে লাস্ট ম্যান স্ট্যান্ডিং। অর্থাৎ, যদি প্রথম ইনিংসে কোনো দলের ৭ উইকেট পড়ে, তাহলে শেষ ব্যাটসম্যান ব্যাটিং চালিয়ে যেতে পারবেন। তবে শেষ ব্যাটসম্যানকে শুধু দুই, চার এবং ছক্কা মেরে রান তুলতে হবে।

রানের সংখ্যার ভিত্তিতে দলগুলোকে স্বর্ণ, রৌপ্য এবং ব্রোঞ্জ পদক প্রদান করা হবে। তিন দলের এই টুর্নামেন্ট সুপারস্পোর্ট ২ তে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

তিন দলের অধিনায়ক নির্বাচিত করা হয়-এবি ডি ভিলিয়ার্স, কুইন্টন ডি কক আর কাগিসো রাবাদাকে। তিন দলীয় ফরম্যাটের দলগুলো হলো-

কেজি’স কিংফিশারস: কাগিসো রাবাদা (অধিনায়ক), ফাফ ডু প্লেসিস, ক্রিস মরিস, তাবরেইজ শামসি, রিজা হেনড্রিকস, জান্নেমান মালান, হেনরিক ক্লাসেন, গ্লেন্টন স্টারমান।

কুইনি’স কাইটস: কুইন্টন ডি কক (অধিনায়ক), ডেভিড মিলার, টেম্বা বাভুমা, এনরিক নোর্তজে, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, বেউরান হেনড্রিকস, জেজে স্মাটস, লুথো সিপামিয়া।

এবি’স ঈগলস: এবি ডি ভিলিয়ার্স (অধিনায়ক), এইডেন মার্করাম, লুঙ্গি এনগিডি, আন্দিলে ফেহলোকাইয়ো, র‍্যাসি ভ্যান ডার ডুসান, জুনিয়র দালা, কাইল ভেরেয়ান্নে, সিসান্দা মাগালা।

অদ্ভুত হলেও এই ম্যাচটি আয়োজনের কারণ, অনুদান সংগ্রহ। করোনায় এই খেলার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যারা অসহায় হয়ে পড়েছেন, তাদের সহায়তার জন্য এই ম্যাচ।