মাহবুব সৈকত :

অ্যাপস ভিত্তিক যাত্রীসেবার দিকে ঝুঁকে পড়েছেন রাজধানীবাসী। ঢাকায় চলছে এখন ‘পাঠাও’ এবং ‘উবার’ এর রাজত্ব। কোন কোন ক্ষেত্রে যাত্রীদের হতাশা থাকলেও নেই অভিযোগ। অভিযোগ করার মতো যায়গাও নেই। যেহেতু এক্ষেত্রে এখনো প্রণয়ন হয়নি নীতিমালা। অ্যাপস ভিত্তিক যাত্রীসেবা নিয়ে এবার মাই টিভির বিশেষ আয়োজন আমাদের চোখ।

দিন কিম্বা রাত, গুরুত্বপূর্ন সড়ক গুলো কখনোই ফুসরত পায়না অবসরের। যাত্রী তুলনায় নেই পর্যাপ্ত গণপরিবহন। তাই এ ভাবেই অফিস শুরু কিম্বা শেষ সময়ে গন্তব্যে পৌছাতে যুদ্ধ করতে হয় সাধারন মানুষকে।

নীতিমালা করেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ করা যায়নি সিএনজি চালিত অটো রিস্কাতে।
এ অবস্থায় উন্নত বিশ্বের মত ঢাকাও চলছে এ্যাপস ভিক্তিক প্রাইভেট কার এবং মটরসাইকেল সেবা। এই সেবাকে নগরবাসি নিয়েছেন ইতিবাচক ভাবেই।

এরই মধ্যে অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান এই সেবায় নামলেও মোটর সাইকেলে রাইড সেয়ারিংএ সুনাম কুড়িয়েছে পাঠাও। তাদের রয়েছে গাড়ির সেবাও। মোটর সাইকেল রয়েছে এমন অনেক ব্যাক্তি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে রেজিষ্টেশন করে চাকুরী কিম্বা পড়া শুনা অবস্থায়ও বাড়তি উপার্যন করছেন সেবা দিয়ে।

কেউবা শুধু মাত্র মোটর সাইকেলে যাত্রী পৌছে দেয়াকেই নিয়েছে পেশা হিসেবে। তবে আরো উন্নত সফটওয়ার এবং সার্ভিস চার্জ কমানোর দাবীও রয়েছে চালকদের। আয়ের ২৫ ভাগ টাকা কেটে নেয়ায় কিছুটা হতাশও চালকরা

পাঠাও বাংলাদেশী তরুন উদ্যোগতাদের সফল প্রচেষ্টা, তাই দেশের মানুষের কথা বিবেচনায় নিয়ে পর্যায়ক্রমে আরো সুবিধা প্রদানের অঙ্গিকারের কথা জানালো প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী।

মধ্যবিত্ত্ব পরিবারের ব্যাক্তিগত গাড়িতে ভ্রমনের শখ কিছুটা হলেও পূরণ করছে এ্যাপস ভিক্তিক গাড়ি সেবা।
তবে। গাড়ির পাশাপাশি উবারেরও রয়েছে মোটর সাইকেল সেবা। তবে যাচাই বাছাই না করে গণভাবে চালক রেজিষ্টেশন করায় মাঝেমধ্যে দুর্ব্যবহারের সম্মুখিন হতে হয় যাত্রীদের।

অনাকাংখিত কোন বিষয়ের জন্য অভিযোগ করেও ফল না পাওয়ার ও পর্যবেক্ষন রয়েছে যাত্রীদের। তাই যথার্থ কর্তৃপক্ষের নজরদারী বাড়ানোরও দাবী তাদের।

বিশ্বের অনেক দেশেই রয়েছে উবারের সেবা। বাংলাদেশেও তারাই শুরু করেছে প্রথম। তবে এ পর্যন্ত গণমাধ্যম এড়িয়ে চলার কিছুটা প্রবণতা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। চেষ্টা করেও সেবার ব্যাপারে কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি উবার কর্তৃপক্ষের।

এখনও নীতিমালা ছাড়াই চলছে এ্যাপস ভিক্তিক সেবা.তবে এ ব্যাপারে কাজ এগিয়েছে অনেক দুর।
গণপরিবহনের ব্যবস্থাকে সৃংঙ্খলায় রাখতে নীতিমালা থাকলেও তা যেমন বাস্তবায়ন করা যাচ্ছে না এপস ভিক্তিক সেবাও তেমন যেন না হয় সে প্রত্যাশা সবার।