আইএসএসএফ ইন্টারন্যাশনাল আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু

0
67

ঢাকায় শুরু হয়েছে তিন দিনব্যপী আইএসএসএফ ইন্টারন্যাশনাল আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ-২০১৮। টুর্নামেন্টে এবার অংশগ্রহণ করছে ১৮টি দেশ।

আন্তর্জাতিক মানের এ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করতে পেরে খুশি দেশি-বিদেশি খেলোয়াড় আর কোচরা। আর আর্চারি ফেডারেশনের লক্ষ গেল বছরের মতো এবারও সফলভাবে টুর্নামেন্ট শেষ করা।

আইএসএসএফ ইন্টারন্যাশনাল সলিডারিটি আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপে পুরুষ ও মহিলাদের রিকার্ভ ও কম্পাউন্ডের চারটি ইভেন্টের সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছেন বাংলাদেশের আট প্রতিযোগী।

মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামের টার্ফে সোমবার ব্যক্তিগত পুরুষ রিকার্ভের কোয়ার্টার-ফাইনালে সৌদি আরবের মনসুর ফাহাদকে ৬-০ সেট পয়েন্টে হারান রোমান সানা।

অপর কোয়ার্টার-ফাইনালে সৌদি আরবের আলোতাইবি ফারেসের সঙ্গে তামিমুল ইসলামের লড়াই দারুণ জমেছিল। ৫-৫ সমতার পর এক তীরের শুটে ১০-৮ ব্যবধানে এগিয়ে সেমি-ফাইনালে ওঠেন তামিমুল।তামিমুল জানালেন আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে জিতেছেন। এই ইভেন্টে সেরা হওয়ার লক্ষ্যও তার।

তামিমুলের ভাষায়, বিশ্বাস ছিল আমি জিতব। পরিস্থিতি যাই হোক না কেন, আত্মবিশ্বাস হারায়নি। এখন লক্ষ্য অবশ্যই ফাইনালে ওঠা এবং সেখানেও ভালো কিছু পাওয়া। সেমি-ফাইনালে যেহেতু এসেছি, সুযোগটা কেন হাতছাড়া করব? আগে থেকেই জানতাম, কোয়ার্টার-ফাইনাল থেকে অনেক কঠিন লড়াই হবে। প্রস্তুতিও নিয়েছিলাম সেভাবে। স্কোরিংয়ে সন্তুষ্ট নই। আসলে দুই দিক থেকে বাতাস প্রবাহিত হওয়ায় সমস্যা হয়েছে।

মহিলা ব্যক্তিগত রিকার্ভে রাদিয়া আক্তার শাপলা তাজিকিস্তানের প্রতিযোগীর সঙ্গে পেরে ওঠেননি। হেরেছেন ৬-২ ব্যবধানে। এই ইভেন্টের সেমি-ফাইনালে ওঠা বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিযোগী নাসরিন আক্তার। তাজিকিস্তানের প্রতিপক্ষকে ৬-০ ব্যবধানে হারান তিনি।

পুরুষ ব্যাক্তিগত কম্পাউন্ডে নেপালের রমেশ ভট্টচানকে ১৩৯-১৩২ স্কোরে হারান অসীম কুমার দাস। সৌদি আরবের আব্দুল আজিজ আলরোধানকে ১৩৯-১৩৭ ব্যবধানে হারান মিলন মোল্লা।

ইরাকের প্রতিযোগীকে ১৪০-১৩৮ ব্যবধানে হারিয়ে সেরা চারে উঠেছেন আবুল কাশেম মামুন। এই ইভেন্টে মোহাম্মদ আশিকুজ্জামান জিতলে সেমি-ফাইনালের চার প্রতিযোগীই হত বাংলাদেশের।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সতীর্থ মিলনের মুখোমুখি হতে হবে অসীমকে। গত সাউথ এশিয়ান আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপের ব্রোঞ্জ নির্ধারণী ম্যাচে মিলনের কাছে হেরেছিলেন তিনি। এবার তাই বাড়তি চাপ অনুভব করছেন অসীম।

অসীম বলেন, শুরুটা ভালো হলেও পরে বাতাসের কারণে আমার শুটিং দুর্বল হয়ে গিয়েছিল। শেষের দিকে আবার ভালো হয়েছে। হয়ত একটু চাপ নিয়ে ফেলেছিলাম বলে এটা হয়েছিল। এখন সেমি-ফাইনালে মোল্লা (মিলন) ভাইয়ের সঙ্গে খেলব। বিকেএসপিতে তার হেরেছিলাম। এবারের ম্যাচটা তাই আমার জন্য আরও চাপের।

মহিলা ব্যক্তিগত কম্পাউন্ডে মরোক্কোর সউদ আল ফাইজকে ১৩৯-১১৫ ব্যবধানে হারিয়ে সেমি-ফাইনালে উঠেছেন রোকসানা আক্তার। আরেক কোয়ার্টার-ফাইনালে সতীর্থ রিতু খাতুনকে ১৩২-১৩০ ব্যবধানে হারান বন্যা আক্তার।