আবারও আসছে শৈত্যপ্রবাহ

0
174

আবারও ঘন কুয়াশায় আচ্ছাদিত হয়ে পড়েছে দেশের অধিকাংশ অঞ্চল। রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের বেশিরভাগ জেলা গভীর রাত থেকে ঘন কুয়াশায় ঢেকে যায়। ফলে বিমান, যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

এদিকে, সারাদেশের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের কিছু কিছু এলাকায় মৃদু শৈত্য প্রবাহ অব্যাহত রয়েছে। এসব বিভাগ ছাড়াও বরিশাল জেলার তাপমাত্রা দশ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে রয়েছে। সকালে দেশের সর্বনিঘ্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে, ৮ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস; আর রাজধানীর সর্বনিঘ্ন তাপমাত্রা ছিলো ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জানুয়ারি মাসের ২৫ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত বাংলাদেশের উপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে ভয়াবহ এই শৈত্যপ্রবাহ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের জেলা গুলোতে জানুয়ারি মাসের ৩০ ও ৩১ তারিখে তাপমাত্রা (বিশেষ করে কক্সবাজার, বান্দরবন জেলায় রাতের তাপমাত্রা ৫ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেডে চলে আসতে পারে)।

আবহাওয়া পূর্বাভাস যদি সঠিক হয়ে থাকে তবে এই শৈত্যপ্রবাহ গত শৈত্যপ্রবাহের চেয়েও ভয়াবহ রকমের ঠাণ্ডা হবে। বিশেষ করে পঞ্চগড়-দিনাজপুর-নীলফামারী জেলায় প্রচণ্ড ঠাণ্ডা পরবে ও রাত ও সকাল বেলার তাপমাত্রা বছরের একই সময়ের গত ৩০ বছরের (১৯৮১ থেকে ২০১০ সাল) গড় তাপমাত্রা অপেক্ষা ৫ থেকে ১০ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড কম থাকবে।

আমেরিকার আবহাওয়া পূর্বাভাষ মডেল Global Forecast System (GFS) পূর্বাভাষ মতে আগামী ২৫ তারিখের পর থেকে একটি শৈত্যপ্রবাহ পঞ্চগড়-দিনাজপুর জেলার উপর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শুরু করবে। ২৭ তারিখ থেকে ২৯ তারিখ পর্যন্ত পুরো দেশে প্রচণ্ড ঠাণ্ডা আবহাওয়া বিরাজ করবে।