ইতালিপ্রবাসী ৩৬ জন ছাড়পত্র পেলেন বাড়ি যাওয়ার

0
243

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের পুবাইলের মেঘডুবি ২০ শয্যাবিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা ৩৬ জন ইতালিপ্রবাসী বাড়ি ফিরেছেন। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষ হওয়ায় সোমবার সকালে তাঁদের ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এরপর জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় তাঁদের বিভিন্ন জেলায় নিজ নিজ গন্তব্যে পাঠানো হয়।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম বলেন, ১৪ মার্চ একই ফ্লাইটে ইতালিপ্রবাসী মোট ৪৪ জন বাংলাদেশি রাজধানীর হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। তাঁরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না, তা পর্যবেক্ষণের জন্য বিমানবন্দর থেকে সরাসরি মেঘডুবি ২০ শয্যাবিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। জ্বর থাকায় ১৪ ও ১৫ মার্চ দুই দফায় আটজনকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য উত্তরার বাংলাদেশ–কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তাঁদের মধ্যে একজনের করোনাভাইরাস ‘পজিটিভ’ আসে। ওই ব্যক্তিকে সেখানে আইসোলেশনে রেখে বাকি সাতজনকে ১৮ মার্চ গাজীপুরের কাপাসিয়ার পাবুর মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।

৪৪ জনের মধ্যে বাকি ৩৬ জন মেঘডুবি মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রেই ছিলেন। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষ হওয়ায় আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাঁদের জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় নিজ নিজ গন্তব্যে পাঠানো হয়। মেঘডুবির ৩৬ জন আজ ছাড়পত্র পেলেও পাবুর মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে থাকা সাতজনকে আগামী ১ এপ্রিল ছাড়পত্র দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কাপাসিয়া স্বাস্থ্য ও পরিবার কর্মকর্তা আবদুস সালাম সরকার।এদিকে গাজীপুরের সিভিল সার্জন মো. খায়রুজ্জামান জানান, জেলায় বিদেশফেরত সর্বশেষ ৪৪১ জনসহ মোট ১ হাজার ৮৯৫ জন হোম কোয়ারেন্টিনে এবং ১১ জন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন রয়েছেন। এ ছাড়া হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ইতিমধ্যে ৫৫৮ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।