সাইদুর রহমান আবির:

বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অংশ হিসেবে সরকারি বেসরকারি অফিস এবং ব্যবসা ও শিক্ষাক্ষেত্রের অধিকাংশই করেছে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর। তবে সিমে মেগাবাইট ক্রয় করে ইন্টারনেট সুবিধা ভোগ করা অনেকের পক্ষেই সম্ভব নয়।

বিষয়টি বিবেচনা রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় বসানো হয়েছে ফ্রি ওয়াই ফাই জোন। রাজধানীসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলো ওয়াই ফাইর আওতায় আনলে সরকারের পদক্ষেপগুলো আরো সফল হত বলে মনে করছেন প্রযুক্তিবিদরা। এ নিয়ে এবারের অায়োজন।

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে তথ্য প্রযুক্তিতে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুত গতিতে। উন্নত দেশগুলোতে ডিজিটাল সকল সুযোগ সুবিধা নাগরিকদের কাছে পৌঁছে দিতে রাজধানীসহ গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলো আনা হয়েছে ফ্রি ওয়াই ফাই এর আওতায়।

তথ্যপ্রযুক্তিতে খুব বেশি পিছিয়ে নেই বাংলাদেশও। সরকারি বেসরকারি সেবাসহ বিভিন্ন কার্যক্রম এবং ব্যবসা ও শিক্ষার অধিকাংশই প্রযুক্তি নির্ভর।

চড়া মূল্যে মেগাবাইট ক্রয় করে এই সুবিধা ভোগ করা একটি শ্রেণীর নাগরিকের পক্ষে কষ্টকর। তাই রাজধানীর টিএসসি এবং আজিমপুরসহ গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি এলাকায় বসানো হয়েছে ফ্রি ওয়াই ফাই জোন। এই সুবিধা পেয়ে জানিয়েছেন নিজেদের সন্তুষ্টির কথা।

রিপোর্টার: সাইদুর রহমান আবির

মানুষের দোড়গোড়ায় ইন্টারনেট পৌছে দিতে নিজ নিজ এলাকা ওয়াই ফাই’র আওতায় আনতে জনপ্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানালেন ওয়াইফাই জোন স্থাপনের উদ্যেক্তারা। তারা বলেন সব এলাকায় ওয়াই ফাই থাকলে যে কোনো কাজ করা সজহ হবে।

আর নগরবাসীর দাবী রাজধানীকে ওয়াইফাইর আওতায় আনার। নগরবাসী মনে করেন শুধু গুরুত্বপূর্ণ এলাকার মতো রাজধানীর সর্বত্র এই ওয়াই ফাই চালুর দাবি জানান তারা।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবিক অর্থে কার্যকর করতে ইন্টারনেটের স্বল্পমূল্য ও সহজলভ্যতার ওপর জোড় দিলেন তথ্য প্রযুক্তিবিদরা।