ইরানের বিক্ষোভ পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘে জরুরি বৈঠকের উদ্যোগ আমেরিকার 

0
99

টানা ছয়দিন ধরে চলা ইরানে সরকার বিরোধী বিক্ষোভের ঘটনা নিয়ে জাতিসংঘের জরুরি অধিবেশন ডাকার পরিকল্পনা করছে আমেরিকা।

জাতিসংঘে নিয়োজিত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি বলেছেন, জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলেও ইরানের বিষয়টি আলোচিত হয়েছে। বিদেশি শত্রুদের ইন্ধনে এই বিক্ষোভ সংগঠিত হয়েছে বলে ইরানের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে যে বক্তব্য এসেছে তা অস্বীকার করেন তিনি। সেই সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তেহরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে, সামাজিক মাধ্যমে কড়াকড়ি শিথিল করার জন্য।

দেশটিতে সরকার সমর্থকরা বুধবার বিক্ষোভরত বিভিন্ন এলাকায় পাল্টা সমাবেশেরও ঘোষণা দিয়েছে।

এদিকে, ইরানে সহিংস বিক্ষোভের পেছনে দেশটির শত্রু রাষ্ট্রগুলো জড়িত বলে ইরানের অভিযোগককে সম্পূর্ণ বাজে কথা বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এ বিক্ষোভের বিষয়ে মন্তব্যের সময় ওই অভিযোগ করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি।

তিনি তার ওয়েবসাইটে এক পোষ্টে বলেন, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ইরানের শত্রুরা এই ইসলামী প্রজাতন্ত্রের সংকট তৈরির লক্ষ্যে নগদ অর্থ, অস্ত্র, রাজনীতি এবং গোয়েন্দাসহ বিভিন্ন উপকরণ ব্যবহার করছে।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, এর মধ্যে দিয়ে আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি ইসরায়েল, যুক্তরাষ্ট্র এবং সৌদি আরবের দিকে ইঙ্গিত করেছেন।

জাতিসংঘের মার্কিন প্রতিনিধি নিকি হ্যালি বলেছেন, এ বিক্ষোভ স্বতস্ফুর্ত, এ অবস্থায় আমেরিকার পক্ষ থেকে জরুরি জাতিসংঘের বৈঠক ডাকার পরিকল্পনা রয়েছে।

ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয় গত বৃহস্পতিবার থেকে। এবং এ পর্যন্ত এ বিক্ষোভে প্রাণ হারিয়েছে অন্তত ২২ জন। জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি এবং দুর্নীতির প্রতিবাদে প্রাথমিকভাবে এ বিক্ষোভ শুরু হয় মাশহাদ শহরে। কিন্তু পরবর্তিতে তা সরকারবিরোধী বিক্ষোভে পরিণত নেয়।