উখিয়ায় মাদক ব্যবসায় রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করা হচ্ছে

0
68

এসকে লিটন:

এবার অভিনব কায়দায় মাদক পাচারকালে শিশুর পাকস্থলি থেকে ইয়াবা উদ্ধার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এর আগে দুই রোহিঙ্গাসহ ছয় মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, উখিয়ায় মাদক ব্যবসায় রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রতি চালানে ১০-১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হচ্ছে বাহকদের।

গেলো ২৪ তারিখ থেকে,আনুষ্ঠানিকভাবে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানে নামে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। তাদের  স্লোগান ছিলো মাদক পরিহার করুন, নিজে বাঁচুন, নতুন প্রজন্মকে বাঁচান।

তারই প্রেক্ষিতে শুরু হয় মাদক বিরোধী অভিযান। সর্বশেষ রোববার রাতে দক্ষিণখান এলাকা থেকে দুই  রোহিঙ্গাসহ ছয় মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। জব্দ করা হয় ৩ হাজার ৩৫০ পিছ ইয়াবা।

নতুন কৌশল হিসেবে শিশুদের নামোনো হয়েছে মাদক ব্যবসায়। ব্যবহার করা হচ্ছে রোহিঙ্গা শিশু ও পুরুষদের। পাক স্থলিতে করে পাচার করা হচ্ছে ইয়াবা। পরে গন্তব্যে পৌঁছে মরণনেশা ইয়াবা পায়ুপথ দিয়ে বের করা হচ্ছে বলে জানান পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, প্রতিটি চালানে ক্যাম্পে থাকা রহিঙ্গাদের দেয়া হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা করে। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসায় জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে মাদক ও শিশুদের পায়ুপথে ইয়াবা পাচার করার অপরাধে পৃথক দুটি মামলা হচ্ছে বলেও জানান দেবদাস ভট্টাচার্য।