মানিক লাল ঘোষ:
আর ক্ষমতায় যাবার সিড়ি হিসেবে ব্যবহার নয়, এবার এককভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের পথেই হাটতে চায় জাতীয়পার্টি। ২৪ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশ থেকে এমন ঘোষণাও আসতে পারে।

দলকে চাঙ্গা করতে ও জনগণের প্রত্যাশা পূরণে এই সমাবেশ দেশের রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ সৃষ্টি করবে বলে মনে করেন দলটির নেতারা।

রিপোর্টার: মানিক লাল ঘোষ

জাতীয় পার্টির নির্বাচনী ভাবনা নিয়ে মাই টিভির সাপ্তাহিক আয়োজন রাজনীতির রাজনীতি।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে মহাজোটের শরীক হিসেবে অংশ নিয়ে একই সাথে মন্ত্রিপরিষদ ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলে অবস্থান নেয় জাতীয় পার্টি।

দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ দায়িত্ব নেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত আর সিনিয়র কো -চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ হন বিরোধী দলের নেতা।

দর কষাকষি আর রাজনীতির জটিল সমীকরণে বেশ কয়েকবার ঘুরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ। বলেন, জাতীয় পার্টি  আর কারো সাথে নয় একাই জাতীয় নির্বাচনে ৩০০ আসনে লড়বে।

এমন বক্তব্যকে অনেকেই আমলে না নিলেও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারাগারে থাকাকালীন ২৪ মার্চ রাজধানীতে জাতীয়পার্টির মহাসমাবেশ নতুন মেরুকরণ সৃষ্টি করবে রাজনীতিতে। এমন আভাস দিচ্ছেন দলটির শীর্ষ নেতারা।

আগামী নির্বাচনে ৩০০ আসনে এককভাবে অংশগ্রহণের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে বলেও জানান দলটির নেতারা। এমনকি জাতীয় পার্টিকে ঘিরে ও হতে পারে আরেকটি জোটও জানান দলের মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার।