এবারও দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত হবে কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়

0
72

প্রতিবছরের মতো এবারও দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে। এবার অনুষ্ঠিত হবে, ১৯১তম ঈদুল ফিতরের জামাত। ঈদ জামাতকে ঘিরে শোলাকিয়ায় চলছে শেষ মুহর্তের প্রস্তুতি। সার্বিক নিরাপত্তায় বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা ও ড্রোন।

শালাকিয়া ঈদগাহ ময়দান। অন্য সব মাঠের মত, এখানে নেই কোন সামিয়ানা। এটিই এই ঈদগাহ মাঠের বৈশিষ্ট। খোলা আকাশের নিচে, যুগ যুগ ধরে, এ মাঠেই হয়ে আসছে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত।

এরই মধ্যে মাঠের সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে। এবারও শোলাকিয়া দেশ-বিদেশের লাখো মানুষের ঢল নামবে বলে আশা করছেন স্থানীয়রা। চার স্তরের নিরাপত্তার পাশাপাশি, মাঠে থাকবে সাদা পোশাকের পুলিশ। এছাড়াও মাঠের বিভিন্ন প্রবেশ পথে থাকছে ক্লোজসার্কিট ক্যামেরা।

মুসুল্লিদের জায়নামায ছাড়া অন্যকিছু না নিয়ে ঈদগাহে প্রবেশ করতে বলা হয়েছে। ঈদের আগের দিন ও ঈদের দিন গুরুত্ব পূর্ন পয়েন্টগুলোতে পনের জন নিবাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

এছাড়াও প্রথমবারের মত ড্রোনের মাধ্যমে ঈদগাহ পর্যবেক্ষন করা হবে।

ঈদ জামাতে অংশ নিতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীসহ দেশবাসীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

এদিকে বাংলাদেশ রেলওয়ে ঈদের দিন মুসুল্লিদের আসা যাওয়ার সুবিধার্থে শোলাকিয়া স্পেশাল নামে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে। একটি ট্রেন সকাল ছয়টায় ভৈরব থেকে ছেড়ে কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশানে পৌঁছাবে সকাল আটটায় অপরটি সকাল পৌনে ছয়টায় ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে কিশোরগঞ্জে পৌঁছাবে সকাল সাড়ে আটটায়। নামায শেষে মুসুল্লিদের নিয়ে ট্রেন দুটি আবার স্ব -স্ব গন্তব্যে ফিরে যাবে।

জনশ্রুতি আছে, কোন এক ঈদের জামাতে এখানে সোয়া লাখ মুসল্লি এক সাথে নামাজ আদায় করেছিলেন। সেই থেকে এ মাঠের নাম হয় ‘সোয়া লাখিয়া’। যা এখন শোলাকিয়া নামেই পরিচিত।