এবারও পথ শিশুদের ঈদের পোশাক দিল মিডিয়া মিউজিয়াম ইয়ুথ ক্লাব

0
70

ঈদ আনন্দ শিশুদের সাথে ভাগ করে নিতে রাজধানী ঢাকার তেজগাও রেললাইন বস্তিতে ছিন্নমূল শিশুদের হাতে নতুন ঈদের পোষাক তুলে দিয়েছে মিডিয়া মিউজিয়াম ইয়ুথ ক্লাব। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার সকালে দেড় শতাধিক শিশুর হাতে নতুন পোষাক তুলে দেন।

ঈদের মাত্র একদিন আগে নতুন পোষাক পেয়ে খুব খুশি এসব শিশুরা। নতুন জামা নিতে আসা শিশু আকলিমার মা ছলছল চোখে বলেন, আর একদিন পরে ঈদ কিন্তু ওর বাবা নেই, আমি বাসায় কাজ করি যে টাকা পাই তাতে বাসা ভাড়া দিয়া আর টাকা থাকে না, কোলের ছোট্ট মাইমুনার জন্য একটা জামা আনলেও আকলিমার জন্য এখনো কেনা হয়নি নতুন জামা ।

তবে এই জামা পেয়ে আকলিমা যে কত্ত খুশি হয়েছে আপনারাই দেখেন। এমন আকলিমার মত রাসেল, হিরন, জালিছ, নুরিদের চোখে মুখে ছিল আজ ঈদের হাসি।

এ বিষয়ে ব্যতিক্রমধর্মী স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মিডিয়া মিউজিয়াম ইয়ুথ ক্লাবের প্রেসিডেন্ট এম এম বাদশাহ্ বলেন, শিশুদের মুখে এমন নিষ্পাপ হাসি ফোটানোর কথা চিন্তা করেই ২০০৯ সালের অক্টোবর মাসে এক সান্ধ্যকালীন আড্ডায় শুরু হয়েছিল মিডিয়া মিউজিয়াম ইয়ুথ ক্লাবের পথচলা ।

এরপর থেকে প্রতিবছরই ঈদের সময়ে নতুন পোষাক দেয়ার কাজটি করছি আমরা। কারন আমরা ঈদের খুশির দিনে কোন শিশুর গোমরা বেজার মুখ দেখতে চাই না, শিশুরা হাসলে হাসবে পৃথিবী। এজন্যই সংগঠনের প্রত্যেক সদস্য ঈদের খরচ সাশ্রয় করে কিছুটা তহবিল তৈরী করি আমরা। সেই টাকায় কেনা হয় ছিন্নমূল শিশুদের জন্য নতুন জামা।

আর বরাবরের মত পাশে আছেন কিছু প্রিয়জন, বন্ধু, স্বজন যাদের মধ্যে দু’একজন প্রবাসী বন্ধুরাও এবার পাশে দাঁড়িয়েছেন এই “ শিশুদের ঈদের খুশি ২০১৮” কর্মসূচিতে। শিশুদের জন্য নতুন জামা কিনতে যারা সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট এম এম বাদশাহ।

তিনি আরো বলেন, এসব শিশুদের হাতে একটি নতুন জামা তুলে দেয়ার পরে তাদের চোখে যে আনন্দের ঝিলিক দেখা যায়, যে অকৃত্রিম খুশির ছোয়া অনুভব করা যায় তার মূল্য বা এ অনুভূতি কাউকে বলে বোঝানো যাবে না।

পথশিশুদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এমএম বাদশাহ বলেন, ‘এ ধরনের কর্মকাণ্ডে তারুণ্য-উদ্যম আর উদ্দীপনায় তরুণ সমাজকে কাজে লাগাতে হবে। তাহলে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন ঘটবে।’

এমন কর্মকাণ্ডে দেশের সর্বস্তরের মানুষের এগিয়ে আসা দরকার বলেও তিনি মনে করেন। সমাজ পরিবর্তনের জন্য যার যার অবস্থান থেকে এসব ক্ষুদ্র আয়োজনই একসময় উন্নত ও শ্রেষ্ঠ জাতির আসনে বসাবে বাংলাদেশকে। তাই আগামী দিনগুলোতেও শিশুদের পাশে থাকার আশার কথা জানান তিনি।

পোশাক বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন মিডিয়া মিউজিয়াম ইয়ুথ ক্লাবের প্রেসিডেন্ট এম. এম. বাদশাহ, ভাইস প্রেসিডেন্ট রিয়াজুল ইসলাম, মমিন হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এফ এম বায়জিদ, প্রচার সম্পাদক মো. শাহজালাল এবং কার্যনির্বাহী সদস্য মাসুদ রানা।