এশিয়া কাপ আয়োজনের অনুমতি পেল শ্রীলংকা

0
323

২০২০ এশিয়া কাপের আয়োজক দেশ ছিল পাকিস্তান। তবে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়ার আগে থেকেই কথা হচ্ছিল, ভেন্যু হয়তো পরিবর্তন হয়ে যাবে। যেহেতু পাকিস্তানের মাটিতে খেলবে না ভারত। সেক্ষেত্রে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বিকল্প ভেন্যু ধরে পরিকল্পনা চলছিল।

বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছিলেন, এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভায় এ নিয়ে আলোচনা হবে।

সোমবারের সভায় মূল আলোচ্য বিষয় ছিল এই এশিয়া কাপ। সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠেয় এই টুর্নামেন্টের বিকল্প ভেন্যু কোথায় হতে পারে, সেটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। 

সভায় সভাপতিত্ব করেন এসিসির প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন। এতে প্রথমবারের মতো অংশ নেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

শ্রীলঙ্কান সংবাদমাধ্যম মঙ্গলবার জানিয়েছে, এশিয়া কাপ আয়োজনে সবুজসংকেত পেয়েছে দেশটি।

সেলন টুডে’র প্রতিবেদনের শুরুতে জানিয়েছে, এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজনে এসিসির সবুজসংকেত পেয়েছে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। বোর্ড সভাপতি শাম্মি সিলভা সোমবার এ খবর নিশ্চিত করেন।

গত জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে এশিয়া কাপের আয়োজন নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। ভারত পাকিস্তানে যেতে রাজি না হওয়ায় উঠেছিল বাংলাদেশের নাম। এরপর দুবাইয়ে এশিয়া কাপ আয়োজনের কথা শোনা গেছে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী সোমবার জানান, করোনাভাইরাস মহামারি হয়ে ওঠার আগে পাকিস্তান ঠিক করেছিল টুর্নামেন্টটা দুবাইয়ে হবে।

সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল এ টুর্নামেন্ট। আয়োজক হওয়া নিয়ে বোর্ড সভাপতি শাম্মি সিলভার উদ্ধৃতি প্রকাশ করেছে সেলন টুডে, ‘পিসিবির সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। বর্তমান বৈশ্বিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে তারা এ সংস্করণের আয়োজন আমাদের হাতে তুলে দিতে সম্মত হয়েছে। (সোমবার) এসিসির সঙ্গে অনলাইনে আমাদের বৈঠক হয়। সেখানে এ টুর্নামেন্ট আয়োজনে তারা একরকম আমাদের সবুজসংকেতই দিয়েছে।’

এসএলসির সভাপতি আরও বলেছেন, এখন তাঁরা এ বিষয়ে দেশের সরকারের সঙ্গে কথা বলবেন। মহামারির মধ্যে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে এ ‍টুর্নামেন্ট আয়োজন করা যায়, সে পরিকল্পনা করবে এসএলসি।