ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস আজ

0
194

আজ ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এটি অনন্য এক দিন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এই দিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথগ্রহণ করে। পরে এই বৈদ্যনাথতলাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামানুসারে মুজিবনগর হিসেবে নামকরণ করা হয়।

জাতি এদিন যথাযোগ্য মর্যাদায় মুজিবনগর দিবস উদযাপন করবে। দিনটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে দেশবাসী এবং প্রবাসে থাকা সব বাংলাদেশিকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, জাতীয় পর্যায়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপন তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের প্রেরণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে আমি দেশবাসীকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও সুখী-সমৃদ্ধ স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

এদিকে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। দিনটি উপলক্ষে আজ ভোর ৬টায় রাজধানীর ধানম-ির ৩২ নম্বর সড়কের বঙ্গবন্ধু ভবন, কেন্দ্রীয় ও জেলাসহ সকল কার্যালয়ে জাতীয় এবং দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। সকাল সাড়ে ৭টায় বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে অর্পণ করা হবে শ্রদ্ধার্ঘ্য।

এ ছাড়াও মেহেরপুরের মুজিবনগরেও দলের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করা হবে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ভোর ৬টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ১০টায় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সোয়া ১০টায় গার্ড অব অনার প্রদান এবং সকাল সাড়ে ১০টায় শেখ হাসিনা মঞ্চে মুজিবনগর দিবসের জনসভা।

আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য এবং ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি থাকবেন দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু।

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে দলের সব কর্মসূচি যথাযথ মর্যাদায় পালনের জন্য সংগঠনের সকল স্তরের নেতাকর্মী এবং সহযোগী সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ইতোমধ্যে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ, আমির হোসেন আমু, আবদুর রহমান, এসএম কামাল হোসেনসহ খুলনা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগ নেতারা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মেহেরপুরে পৌঁছেছেন।