ওয়ান প্ল্যানেট সম্মেলনে যোগ দিতে ফ্রান্সে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

0
58

ওয়ান প্ল্যানেট শীর্ষক সম্মেলনে যোগ দিতে ফ্রান্স সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এমনটাই জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। সোমবার তিনি প্যারিস যাচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, প্যারিসে ওয়ান প্ল্যানেট সম্মেলনে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সহযোগিতা চাইবেন প্রধানমন্ত্রী।

পররাষ্ট্র্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে কথা বলতে ওয়ান প্ল্যানেট সম্মেলনে যোগ দিতে প্যারিস যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় অভিন্ন প্রচেষ্টা এগিয়ে নিতে সরকারি ও বেসরকারি অর্থায়নের কর্মপন্থা নির্ধারণই এ সম্মেলনের মূল লক্ষ্য।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ,বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম এবং জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে এ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

বিশ্বের ১৮৮টি দেশের ঐকমত্যে ২০১৫ সালে প্যারিস জলবায়ু চুক্তির দুই বছরের মাথায় মঙ্গলবার এলিসি প্রাসাদে এ সম্মেলন মিলিত হচ্ছেন বিশ্ব নেতৃবৃন্দ।

ওই চুক্তিতে তারা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি এমন পর্যায়ে বেঁধে রাখার উদ্যোগে নেওয়া হবে, যাতে তা প্রাক-শিল্পায়ন যুগের চেয়ে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি না হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী রোববার সাংবাদিকদের জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার বিকালে ওয়ান প্ল্যানেট সামিটে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে অংশ নেবেন। তার আগে সকালে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে দ্বিপাক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হবেন।

আর ওআইসি’র বিশেষ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেবেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদ। সেখানে জেরুজালেমকে ইসরায়েল এর রাজধানীর স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশের অবস্থান জানাবেন রাষ্ট্রপতি।

জেরুজালেমকে ইসরায়েল এর রাজধানীর স্বীকৃতি দিয়ে ট্রাম্প প্রশাসনের ঘোষণার পর ওআইসির শীর্ষ সম্মেলন ডাকা হয়েছে এ মাসে। সেই সম্মেলনে অস্থির হয়ে ওঠা আরব ইসরায়েল পরিস্থিতিতে করণীয় এবং বাংলাদেশের অবস্থান জানাবেন রাষ্ট্রপতি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এ বিষয়ে ওআইসিতে বাংলাদেশ এর অবস্থান তুলে ধরলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে কোন প্রভাব পড়বে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সম্মেলনে যোগ দিলেও আমেরিকার সাথে বাংলাদেশের কূটনীতিক সম্পর্কেও কোনো অবণতি হবে না।

আগামী বছর ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫ তম সম্মেলন ঢাকায় আয়োজন করা হবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।