শারমিন আজাদ :

পানিতে ব্যাকটেরিয়া। আর সেই পানিই বিক্রি হচ্ছে জারে দোকানে, শপিং মলে। অথচ এইসব পানির কারখানার বেশিরভাগেরই লাইসেন্স নেই। যাদের আছে, তারাও সঠিকভাবে পানি বিশুদ্ধ করছে না। নিয়ম অনিয়মের অনুসন্ধানী টিমের চোখে এইসব ভেজাল পানি কারখানার চিত্র উঠে এসেছে।  ।

মিরপুরের মাজার রোড এলাকায় বেশ কিছু খাবার পানি উৎপাদন কারখানা রয়েছে। নিয়ম অনিয়ম টিমকে এলাকার একজন জানালেন, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ফিল্টার না করেই জারে পানি ভরছে একটি কারখানা। সেখানে গিয়ে দেখা গেল, লোক ঠকানোর সব প্রস্তুতি।

আছে পানি বিশুদ্ধ করার যন্ত্রপাতি। বিএসটিআইয়ের লাইসেন্সও আছে। কিন্তু ফাঁকি চলছে আসল কাজে। মোটরই চালু হয় না ফিল্টারের। সরাসরি ওয়াসার পানিই চলে যায় জারে জারে।

এইসব ভেজাল পানি নিয়ে মোবাইল কোর্টের অভিযান চললেও, বিক্রেতার দাবি, তারা স্বচ্ছ।