করোনার ওষুধ হিসেবে ‘রেমডেসিভির’ ব্যবহারের অনুমোদন দিল যুক্তরাষ্ট্র

0
196

করোনা চিকিৎসার জরুরি প্রয়োজনে শুক্রবার ‘রেমডেসিভির’ ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের দ্য  ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। গতকাল মার্কিন প্রেসিডেন্ট  ডোনাল্ড ট্রাম্প এ কথা জানান।

করোনাভাইরাসের পরীক্ষামূলক ওষুধ রেমডেসিভির নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই আশাব্যঞ্জক কথা শোনা গিয়েছিল। গত বুধবার করোনাভাইরাসের পরীক্ষামূলক ওষুধ রেমডেসিভির নিয়ে আশার কথা বলেছিলেন মার্কিন গবেষকেরা। ওষুধটি নিয়ে একটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ৩০ শতাংশ দ্রুত রোগীর সেরে ওঠার প্রমাণ পাওয়া যায়।

বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ট্রাম্প বলেছেন, এ ওষুধ করোনাভাইরাস চিকিৎসায় ব‌্যবহার করা যাবে। ওষুধ প্রস্তুতকারক গিলিয়েডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এই পদক্ষেপকে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করেছেন এবং রেমডেসিভিরের ১৫ লাখ ভায়াল দান করবেন।

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, আগামী সোমবার হাসপাতালগুলোয় ওষুধ বিতরণ শুরু হবে।

ওষুধটি মূলত ইবোলার চিকিৎসায় তৈরি হয়। সারা বিশ্বের হাসপাতালগুলোর সঙ্গে যুক্ত একটি মার্কিন পরীক্ষায় প্রাথমিক ফলাফলে দেখা গেছে, রেমডেসিভির প্রয়োগে সেরে ওঠার সময় ১৫ দিন থেকে ১১ দিনে নেমে এসেছে। সাধারণ ফ্লুর ক্ষেত্রে ইনফ্লুয়েঞ্জার ওষুধ তামিফ্লু যে প্রভাব ফেলেছে, এটি তার অনুরূপ।

ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল হিসেবে এই ওষুধের কার্যকারিতার প্রমাণের পর একেবারে আশঙ্কাজনক রোগীদের ক্ষেত্রে রেমডেসিভির ব্যবহৃত হচ্ছিল। তবে এফডিএর অনুমোদনের পর যুক্তরাষ্ট্রে ডাক্তাররা এখন থেকে এই ওষুধ প্রেসক্রাইব করতে পারবেন।

জনস্বাস্থ্য সংকট চলাকালে রোগীদের জন‌্য দ্রুত পরীক্ষামূলক ওষুধ, পরীক্ষা ও অন্য চিকিৎসাগত পণ্যগুলোকে দ্রুত উৎপাদনে এফডিএর জরুরি ক্ষমতার অধীনে ওষুধটিকে অনুমোদন দিয়েছে।

সাধারণ সময়ে এফডিএর কাছ থেকে ওষুধের অনুমোদন পেতে সুরক্ষা এবং কার্যকারিতার  যথেষ্ট প্রমাণ প্রয়োজন হয়। মনে রাখতে হবে, করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য এখন কোনো ওষুধ অনুমোদিত নয়, রেমডেসিভিরেরও আনুষ্ঠানিক অনুমোদনের প্রয়োজন হবে।