করোনায় আয় বেড়েছে জুম ভিডিও মিটিং সেবাদাতা কোম্পানির

0
493

করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে ভিডিও কলের ব্যবহার বেড়েছে। ফলে ভিডিও মিটিং সেবাদাতা জুমের আয় বেড়ে গেছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছে কোম্পানিটি। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়।

জুম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ৩০ এপ্রিল শেষ হওয়া প্রান্তিকে তাদের মুনাফা হয়েছে ২ কোটি ৭০ লাখ মার্কিন ডলার। আয় বেড়েছে ১৬৯ শতাংশ। গত প্রান্তিকে ৩২ কোটি ৮০ লাখ ডলারের বেশি আয় করেছে তারা। গত বছরের একই সময়ে জুমে শেয়ার প্রতি মূল আয় ছিল শূন্যের কোঠায়।

জুমের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী এরিক ইউয়ান বলেন, কোভিড-১৯ সংকট জুম ব্যবহারে বেশ চাহিদা সৃষ্টি করেছে। গত প্রান্তিকের হিসাব অনুযায়ী, জুমে ২ লাখ ৬৫ হাজার ৪০০ অর্থের বিনিময়ে সেবা গ্রহণকারী গ্রাহক সৃষ্টি হয়েছে, যা ২০১৯ সালের তুলনায় ৩৫৪ শতাংশ বেশি।

জুমের আয় বাড়ার পাশাপাশি প্ল্যাটফর্মটির নিরাপত্তা ও প্রাইভেসি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। জুম মূলত আইটি বিভাগের কর্মীদের লক্ষ্য করে তৈরি করা হয়েছিল, যাঁদের বিশেষ নিরাপত্তা ফিচার নিয়ে কাজ করতে হয়। তবে মহামারি শুরু হলে এ প্ল্যাটফর্মে সবাই ঝাঁপিয়ে পড়েন।

নিরাপত্তা ও প্রাইভেসি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করায় প্রতিষ্ঠানটি এখন এদিকে মনোযোগ দিচ্ছে। জুম কর্তৃপক্ষকে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশনের মতো নিয়ন্ত্রকদের মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

ভিডিও কনফারেন্সিং সরবরাহকারী জুম ভিডিও কলের বিশেষ নিরাপত্তা হিসেবে এনক্রিপশনকে জোরদার করার পরিকল্পনা করেছে। তবে এনক্রিপশন পেতে অর্থ খরচ করতে হবে। প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মকর্তা বলেন, যেসব অ্যাকাউন্টের ব্যবহারকারীরা অর্থ খরচ করে জুম ব্যবহার করবেন, তাঁরা এনক্রিপশন পাবেন।

বর্তমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ভিডিও কনফারেন্সিং সেবা হিসেবে জুমের ব্যবসা বহু গুণ বেড়েছে। তাদের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, বিভিন্ন গ্রুপের আহ্বানের ভিত্তিতে তারা স্কুলের মতো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে এ ধরনের সুবিধা বিনা মূল্যে দিলেও ফ্রি অ্যাকাউন্ট ব্যবহারকারীদের এ সুবিধা দেবে না।