কোস্টারিকায় বিমান দুর্ঘটনায় দশ মার্কিনসহ নিহত ১২

0
114

কোস্টরিকার জনপ্রিয় একটি সমুদ্র সৈকতের অদূরে পার্বত্য এলাকার বনে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১০ মার্কিন নাগরিকসহ ১২ জন নিহত হয়েছেন। রোববারের এ ঘটনায় নিহত অপর দুজন স্থানীয় দুই পাইলট বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

কোস্টারিকার রাজধানী সান হোসে থেকে প্রায় ২৩০ কিলোমিটার পশ্চিমে গুয়ানাকাস্তে প্রদেশের সৈকত শহর পুন্তা ইসলিতার অদূরে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

কোস্টারিকার সিভিল এভিয়েশন এজেন্সির পরিচালক এনিয়ো কুবিল্লো জানিয়েছেন, স্থানীয় কোম্পানি নেচার এয়ারের সেসনা ২০৮বি গ্রান্ড ক্যারাভান বিমানটি উড্ডয়নের কিছুক্ষণের মধ্যেই বিধ্বস্ত হয়।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দুর্ঘটনার কারণ নির্ণয় করতে পারেননি এজেন্সির কর্মকর্তারা।

কুবিল্লো জানিয়েছেন, একমাস আগের একটি নিরাপত্তা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ বিমানটিকে উড্ডয়নের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

ঘটনার দিন সকালে তীব্র বাতাসের কারণে বিমানটির পাইলটরা ভ্রমণপথ পরিবর্তনে বাধ্য হলেও নিরাপদেই সান হোসে থেকে পুন্তা ইসলিতায় পৌঁছেছিলেন। সৈকত শহরটি থেকে যাত্রীদের নিয়ে রাজধানীতে ফেরার কথা ছিল বিমানটির।

এর আগে নেচার এয়ারের আরেকটি বিমান পুন্তা ইসলিতা থেকে ১০ যাত্রী নিয়ে নিরাপদে সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে সান হোসে পৌঁছায়। এর ২০ মিনিট পর দুর্ঘটনায় পড়া বিমানটি ১০ যাত্রী ও দুই পাইলট নিয়ে রওনা হয়েছিল।

এক বিবৃতিতে কোস্টা রিকার নিরাপত্তামন্ত্রী গুস্তাভো মাতা বলেছেন, “কোনো আরোহী বেঁচে নেই।”

শরীর মারাত্মকভাবে পুড়ে যাওয়ায় নিহতদের পরিচয় ও তাদের মোট সংখ্যা নির্ধারণের জন্য ময়নাতদন্ত প্রয়োজন হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এক টুইটে কোস্টরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট লরা চিনচিল্লা জানিয়েছেন, দুর্ঘটনায় তার এক কাজিন (দুই পাইলটের মধ্যে একজন) নিহত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা ওই বিমান দুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজন মার্কিন নাগরিক নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন।