গাজীপুর সিটির নির্বাচন দেখে আন্দোলনের কর্মসূচি দেয়া হবে : হাফিজ উদ্দিন

0
67

এবারের বাজেট হবে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী বৈতরনী পাড় করার বাজেট বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব:) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

আজ মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে লেবার পার্টির আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। গাজীপুর সিটির নির্বাচন দেখে আন্দোলনের কর্মসূিচ দেয়া হবে বলেও জানান বিএনপির এ নেতা।

হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশে প্রতিদিন বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড হচ্ছে। অডিও রেকর্ড এর মাধ্যমে আমরা শুনতে পাচ্ছি এক স্বামীহারা স্ত্রীর আকুতি।

সরকার বলছেন- মাদকদ্রব্য চোরাকারবারীদের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। অথচ নিহতের স্বজনরা বলছেন তাকে তিন-চার দিন আগে ধরে নেওয়া হয়েছে। তাদের কাছে মুক্তিপণ চেয়েছে।  মুক্তিপণ না পেয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এই ধরনের নৃশংস হত্যা প্রতিদিনই রাস্তাঘাটের ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে।

বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আন্দোলন করছে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি যে সংগ্রাম, আমরা যে সংগ্রামে আত্মনিয়োগ করেছি সেটি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নয়। আমরা জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জন্য, দেশে গণতন্ত্র পুনর্প্রতিষ্ঠার করার জন্য মাঠে নেমেছি।

এই সরকারের আমলে কোনও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না দাবি করে বিএনপির এ নেতা বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া ২০ দলীয় জোট নির্বাচনে যাবে না। আমরা সুস্পষ্ট উচ্চারণ করতে চাই এই আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনেও ২০ দলীয় জোট নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না।

হাফিজ বলেন, যদি নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠার না হয় আমরা নির্বাচনে যাব না। আমরা রাজপথে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য নেমেছি। প্রয়োজনে আরও শক্ত অবস্থান নিয়ে আমরা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবো। আমরা গাজীপুর সিটি নির্বাচন পর্যন্ত আমরা দেখব তারপর ঈদের পর আমরা ২০ দলীয় জোট সিদ্ধান্ত নেবে আমাদের করণীয় কি হবে।

২০ দলীয় জোট দুর্বল নয় জানিয়ে তিনি বলেন, ২০ দলের জোটের শতকরা ৮০ জন লোকের সমর্থন রয়েছে। এই সরকার একটি দুর্বল সরকার। মাত্র কয়েকদিন আগে গুটিকয়েক ছাত্রদের রাজপথে নেমেছিল তাদের কাছে সরকার মাথা নত করেছে।  ঈদ পরবর্তী আন্দোলনে এ দেশের ছাত্র সমাজ সরকারের পতন ঘটিয়ে বাড়ি ফিরবে।