চার্চে সুন্দরী হত্যার দায়ে ৬০ বছর পর ধর্ম যাজককে সাজা

0
71

পাপ মানুষকে কখনো ছাড়ে না তা আবার প্রমাণ হলো। ৬০ বছর পর এক অপরাধীকে সাজার মধ্য দিয়ে তা নতুন করে সবাইকে স্মরণ করে দিল।

আমেরিকা টেক্সাসে সাবেক এক সুন্দরীকে ৬০ বছর আগে খুন করার অপরাধে সাবেক খ্রীষ্টান এক যাজককে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ওই নারী সেই সময় চার্চে যাজকের কাছে স্বীকারোক্তির জন্য এসেছিলেন।

সেই সময় ওই ধর্ম যাজক ঠাণ্ডা মাথায় ইরেনি গার্জ নামের ওই নারীকে প্রথমে যৌন হেনস্থা ও পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। ওই ধর্ম যাজককে শুক্রবার তার অপরাধের জন্য যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

টেক্সাস সুন্দরী ইরেনি গার্জ

টেক্সাসের ম্যাকঅ্যালেন চার্চের যাজক জন ফেইটের কাছে ১৯৬০ সালের পবিত্র সপ্তাহের ১৬ এপ্রিল স্বীকারোক্তির জন্য আসেন পেশায় শিক্ষিকা এবং টেক্সাসের সাবেক সুন্দরী ২৫ বছরের ইরেনি গার্জ। তার পরের দিন সকাল থেকেই তিনি নিখোঁজ হয়ে যান।

সেই বছরের ২১ এপ্রিল ইরেনির দেহ উদ্ধার হয় চার্চ সংলগ্ন খাল থেকে। পুলিশ জানায়, খুনের আগে ইরেনির সঙ্গে যৌন নির্যাতন করা হয় এবং তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়।

পুলিশী তদন্তে জানা যায়, চার্চের যাজক জন ফেইটই স্বীকারোক্তির সময় ইরেনিকে যৌন হেনস্থা করে এবং তাঁকে খুন করে খালের জলে ফেলে দেয়। খুনের সময় জন ফেইটের বয়স ছিল ২৭, আর এথন ৮৫।

তাই যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে। এতবছর কেন লাগল সাজা ঘোষণা করতে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

তবে পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার ৬০ বছর পরই যাজক নিজের দোষ কবুল করেছে। তাই সেই বয়ানের রেকর্ড আদালতে পেশ করার পরই তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।