চোখ ধাঁধাঁনো চমক থাকলেও মোড়কে নেই পণ্যের পর্যাপ্ত তথ্য

0
201

শারমিন আজাদ:

চোখ ধাঁধাঁনো চমক থাকলেও মোড়কে নেই পণ্যের পর্যাপ্ত তথ্য। অথচ যথাযথ তথ্য দেয়ার জন্য রয়েছে আইন। আর এই আইনকেই মানছে না বাঘা বাঘা প্রতিষ্ঠান, নিচ্ছেন না নিবন্ধন।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসটিআই জানায়, নিবন্ধন ছাড়া মোড়কজাত পণ্য বাজারজাত করারও নিয়ম নেই। নিয়ম উপেক্ষা করায় ভোক্তা অধিকার হচ্ছে ক্ষুন্ন।

দেশের স্বনামধন্য কোম্পানির পণ্য এগুলো। অথচ মোড়কের গাঁয়ে নেই বিস্তারিত তথ্য।আর এর মাধ্যমেই কোম্পানীগুলো ভাঙছেন মোড়কজাতকরণ বিধিমালা ২০০৭।

পণ্যের গায়ে পর্যাপ্ত তথ্য নেইনিয়ম অনুযায়ী প্যাকেটের গায়ে লেখা থাকার কথা উৎপাদন ও মেয়াদ উত্তীর্ণেরও তারিখ।

বিদেশ থেকে আমদানী করা পণ্যেও থাকছে না আমদানীকারকের নাম। কেন এমন অবস্থা চলছে, তার বিস্তারিত তুলে ধরেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসটিআই।

শুধু প্যাকেট জাত খাদ্য নয় বেভারেজ ও সাবান প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলোরও একই চালবাজি করে বলে জানান বিএসটিআই এর পরিচালক মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন মোল্লা।

রিপোর্টার: শারমিন আজাদ

আইন না মানায় ভোক্তা অধিকার হচ্ছে ক্ষুন্ন। ন্যায্য মূল্য দিয়েও ভোক্তারা পাচ্ছেন না যথার্থ সেবা এমনটাই মনে করছে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর।

ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের পরিচালক তৌহিদুর রহমান বলেন, আইন আছে, বিধিমালা আছে; লঙ্ঘন করলে সাজারও বিধান আছে- কিন্তু সঙ্গে আছে আইন না মানার প্রবণতা। এক্ষেত্রে জনসচেতনতাই হতে পারে একমাত্র সমাধান।