জাফর ইকবালের অবস্থা ভালো, সবাইকে শান্ত থাকতে বলেছেন: ইয়াসমিন হক

0
35

ড. জাফর ইকবালের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। তিনি সবাইকে শান্ত থাকতে বলেছেন এমনটাই জানালেন তার স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হক।

শনিবার সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এক অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ডক্টর জাফর ইকবালকে ছুড়িকাঘাত করে এক দুবৃর্ত্ত।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর উন্নত চিকিৎসায় রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিলেট থেকে ঢাকায় সিএম এইচ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে।

সকালে চিকিৎসাধীন ড. জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থা আগের তুলনায় ভাল আছে বলে জানান স্ত্রী ইয়াসমিন হক।

সামরিক হাসপাতালে স্বামীর চিকিৎসা সেবার কোন ক্রটি নেই এমনটা জানিয়ে অধ্যাপক জাফর ইকবালের ছাত্রদের শান্ত থাকার আহবান জানান তিনি।

স্বামীর দ্রুত আরোগ্যের জন্য মানুষের দোয়া কামনা করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইয়াসমিন হক জাফর ইকবালকে সুচিকিৎসা প্রদানের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান।

তিনি বলেন, তাকে (জাফর ইকবাল) উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে নেয়ার প্রয়োজন নেই, যেহেতু ‘দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার প্রতি আমার সম্পূর্ণ ভরসা রয়েছে।’

ইয়াসমিন বলেন, বেশ কয়েকবার তাদের প্রতি হুমকি আসায় সরকার তাদের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে।

হামলার পর জাফর ইকবাল তার সঙ্গে কথা বলেছেন উল্লেখ করে ইয়াসমিন বলেন, হামলার ১০ মিনিট পর তার স্বামী তার সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তিনি তাকে ও পরিবারের সদস্যদের দুশ্চিন্তা করতে নিষেধ করেন।

এর আগে সিএমএইচ-এর চিকিৎসকরা এক ব্রিফিংয়ে জানান, জনপ্রিয় এই লেখক গতকাল সিলেটে ছুরিকাহত এবং তিনি গত রাত থেকে সিএমএইচ-এ চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি এখন শঙ্কামুক্ত।

সকালে সিএমএইচ-এর প্রশাসন ব্লকে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর চিফ কার্ডিয়াক সার্জন ও কনসালটেন্ট সার্জন জেনারেল মেজর জেনারেল মুনশি মো. মজিবুর রহমান বলেন, ‘অধ্যাপক জাফর ইকবাল এখন সম্পূর্ণ শঙ্কামুক্ত এবং তার সম্পূর্ণ জ্ঞান রয়েছে। তিনি চিকিৎসকদের সহযোগিতাও করে যাচ্ছেন।’

জাফর ইকবাল শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিকেল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের প্রধান এবং কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক।