জয়পুরহাট জেলা আধুনিক ১০০ শয্যার হাসপাতালে ৪০০ রোগী

0
62

বিপুল কুমার সরকার : ভোগান্তির আরেক নাম জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতাল। এক সময় এই হাসপাতালটি দেশের শীর্ষস্থানীয় হাসপাতালের একটি হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করলেও বর্তমানে নানা সমস্যা নিয়েই চলছে এখানকার চিকিৎসা সেবা।

এতে আশপাশের জেলা থেকে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা হতাশ।

১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠিত ১০০ শয্যার এই হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা এতটাই উন্নত ছিল যে প্রতিদিন জয়পুরহাটসহ আশপাশের জেলা থেকে প্রায় দেড় হাজার রোগী আসেন চিকিৎসা সেবা নিতে। ১০০ শয্যার হাসপাতাল হলেও এখানে গাদাগাদি করে থাকেন প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ রোগী। অনেকেই বেড না পেয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে মেঝেতে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে। এছাড়াও অধিকাংশ বাথরুমের দরজা ভেঙ্গে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হওয়াসহ সরকারীভাবে তেমন ঔষধ না পাওয়ায় রোগীরা চরম ক্ষুব্ধ ।

এদিকে গত ৩১ মে রোগীর প্রেসকিপশনে ভুল ঔষুধ লিখে দেওয়াকে কেন্দ্র করে রোগীর স্বজনদের সাথে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে ডাক্তার, নার্স ও কর্মচারীরা বিক্ষোভ করে। এমন ঘটনা ঘটে থাকে মাঝেই মাঝেই ।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ এফ.এম.মুছা-আল-মানছুর বলছেন, চাহিদা অনুযায়ী ডাক্তার, জনবল ও যন্ত্রপাতি পেলে এসব সমস্যা সমাধান হবে।

এই হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও জনবল নিয়োগসহ প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ সংকট পূরণ করে চিকিৎসা সেবা উন্নত করতে সংশ্লিষ্টরা দ্রুত পদক্ষেপ নেবেন এমনটাই দাবী জয়পুরহাটবাসীর।