টঙ্গীতে স্বামীকে গলাকেটে হত্যা, স্ত্রী আটক

0
746

গাজীপুরের টঙ্গীতে দাম্পত্য কলহের জের ধরে সাইফুল ইসলাম (৪৮) নামে এক ব‌্যক্তির গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত সাইফুলের স্ত্রী বিউটি আক্তারকে (৪০) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার টঙ্গীর হিমারদীঘি এলাকার জনৈক আব্দুল কুদ্দুসের বাড়িতে এ হত্যার ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের টঙ্গী পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাবুল আহমেদ।

নিহত সাইফুল ইসলাম রংপুরের গঙ্গারচর থানার চাঁনবাগ গ্রামের সামসুল ইসলামের ছেলে।সাইফুল পেশায় একজন হকার এবং তার স্ত্রী একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) বাবুল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন যাবত দাম্পত্য কলহ বিরাজ করছিল ওই দম্পতির মধ্যে। বুধবার সকালে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে স্ত্রী বিউটি ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামী সাইফুলের গলায় ছুরি চালিয়ে দেন। পরে তিনি স্বামীর মরদেহ ঘরে রেখেই কারখানায় কাজে যোগ দেন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কারখানা থেকে ছুটি নিয়ে বিউটি বাসায় ফিরে আসেন। পরে পাশের ভাড়াটিয়ারা বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার ও বিউটিকে আটক করে।

এসআই আরও জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সাইফুল ইসলামের গলাকাটা লাশ এবং একটি রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের স্ত্রী বিউটি আক্তারকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর এই হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে বলা যাবে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুরের শহীদ তাজ উদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।