তীব্র তাপদাহে মারা যাচ্ছে সাতক্ষীরার বিভিন্ন ঘেরের বাগদা চিংড়ি

0
132

নিম্ন মানের রেণু, ভাইরাসের আক্রমন ও তীব্র তাপদাহের কারণে মারা যাচ্ছে সাতক্ষীরাও বিভিন্ন ঘেরের বাগদা চিংড়ি। প্রায় প্রতিটি ঘেরে এ অবস্থার সৃষ্টি হওয়ায় মাথায় হাত উঠেছে চিংড়ি চাষীদের।

এ অবস্থা চলতে থাকলে আগামীতে চিংড়ি চাষের আগ্রহ হারাবেন চিংড়ি চাষীরা। তবে ভাইরাসের পাশাপাশি তীব্র তাবদাহে মাছ মারা যাচ্ছে বলে অভিমত মৎস্য কর্মকর্তাদের। সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ফয়জুল হক বাবুর তথ্য ও চিত্রে বিস্তারিত জানাচ্ছে আরিফুল ইসলাম।

সরকারী হিসেবে সাতক্ষীরায় ছোট বড় মিলিয়ে ৫৫ হাজার ১ শত ২২টি মাছের ঘের রয়েছে। জেলায় এবছর ৬৬ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে বাগদা চিংড়ি চাষ করা হচ্ছে।

সরবরাহকৃত রেনু মানসম্মত না হওয়ায় ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। চাষের এক থেকে দেড় মাসের মধ্যেই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে মাছ । ফলে চাষীরা হচ্ছেন ক্ষতিগ্রস্থ।

এ কারণে বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঋন নিয়ে মাছ চাষ করে সময় মত ঋন শোধ করতে পারবেন না, এমন আশংকা অনেক মৎস্য চাষির। ব্যবসায়ীরা জানান সরবরাহকৃত রেনু মানসম্মত না হওয়ায় ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চিংড়ি মারা যাচ্ছে।

ক্ষতির হাত থেকে চাষিদের রক্ষার্থে ঋনের ব্যবস্থার কথা জানান ব্যবসায়ী সমিতির নেতা সাতক্ষীরা জেলা চিংড়ি ঘের ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি ডা.আবুল কালাম বাবলা।

সাতক্ষীরা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো.শহিদুল ইসলাম সরদার জানান, ঘেরে পানি না থাকায় কিছু গরম পানিতে ভাইরাসে বাগদা চিংড়ি মারা যাচ্ছে। সাদা সোনা খ্যাত চিংড়ী নির্ভর সাতক্ষীরার অর্থনীতিকে বাঁচাতে হলে চাষীদের মধ্যে সহজ স্বর্তে ঋন ও সচেতনতা সৃষ্টির ওপর জোর দেয়ার তাগিদ সংশ্লিষ্টদের।