থুবড়ে পড়ছে এশিয়া মহাদেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা

0
96

আজিজুল ইসলাম বুলু  : জনবলের অভাবে ক্রমেই মুখ থুবড়ে পড়ছে এশিয়া মহাদেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা। এর ফলে কোটি কোটি টাকা দিয়ে আমদানী করা মেশিপত্র সচল না থাকায় নষ্ট হবার উপক্রম।

তার পরেও রেলখাতকে বাচাতে এই ধকল কাঁটিয়ে ওঠার প্রত্যাশা রেলমন্ত্রীর মুজিবুল হকের।

১৯৭০ সাল থেকে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এশিয়া মহাদেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানাটি সচল থাকলেও নানা অজুহাতে ১৯৮৫ সালে বন্ধ হয়ে যায় কোচ নির্মান। আপস

১৯৯২ সালে গোল্ডেন হ্যানসেকের নামে বাধ্যতামূলকভাবে চাকুরিচূত্য করা হয় দক্ষ শ্রমিকদের।
বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর রুগ্ন দশা থেকে প্রাণ ফিরে পায় কারখানাটি। ২৯টি ওয়ার্কশপে ৭৮৭টি মেশিনের কর্মষজ্ঞে ব্রোডগেজ ৪২৮টি ও মিটারগেজ ২১৪টি যাত্রীবাহী কোচ নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়।

২ হাজার ৮৩৪ জনের স্থলে বর্তমানে দক্ষ-অদক্ষ মিলিয়ে কর্মরত শ্রমিক রয়েছে মাত্র ১ হাজর ১ জন। এরমধ্যে ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ৫ শতাধিক দক্ষ শ্রমিক অবসরে গেলে হুমকির মুখে পড়বে রেলওয়ে কারখানটি ।

আর তাই কারখানাটি পরির্দশনে এসে সংকট উত্তোরনের আশ্বাস দিলেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক।
সংকট কাটিয়ে দক্ষজনবল তৈরীসহ আবারও উৎপাদনে গতিশীল হবে কারখানাটি ; ভূমিকা রাখবে রেলখাতের উন্নয়নে এমটাই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।