দেশের অধিকাংশ এলাকায় বইছে শৈত্যপ্রবাহ; দুস্থ মানুষের দুর্ভোগ চরমে

0
105

দুই একটি অঞ্চল ছাড়া সারাদেশে মৃদু থেকে মাঝারি ধরণের শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। বয়ে যাচ্ছে রংপুর বিভাগের ওপর দিয়ে। দেশের ইতিহাসের সর্বনিস্ন তাপমাত্রার রেকর্ড ছুঁই ছুঁই করছে এই বিভাগের তাপমাত্রা।

গতরাতে সর্বনিস্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সৈয়দপুরে ২ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ১৯৬৮ সালের ৪ ফেব্রয়ারি শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিস্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৮ রেকর্ড করা হয়েছিলো।

তেঁতুলিয়াতে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস সর্বনিস্ন তাপমাত্রা ২ দশমিক ৬ ডিগ্রির কথা বলার পর নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এছাড়াও নীলফামারির ডিমলায় ৩ ডিগ্রি, কুড়িগ্রামে ৩ দশমিক ২ ডিগ্রি ও নওগাঁতে ৪ ডিগ্রি, রংপুরে ৪ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

এছাড়াও রাজশাহীতে ৫ দশমিক ৩, বগুড়া ও চুয়াডাঙ্গায় ৫ দশমিক ৫ এবং ঈশ্বরদীতে ৫ দশমিক ৬ রেকর্ড করা হয়েছে। প্রচণ্ড শীতে এখন নাকাল দেশের উত্তরাঞ্চলের মানুষ।

উত্তরাঞ্চল ছাড়াও দেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, উত্তরাঞ্চলে তীব্র শৈত্য প্রবাহের

পাশাপাশি দেশের অন্যান্য অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। রাজধানীতে গত রাতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে।