জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে পুলিশকে জনসম্পৃক্ততা গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

0
118

পুলিশের প্রতিটি সদস্যকে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার পাশাপশি জনগণের সেবায় কাজ করার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের মাটিতে জঙ্গী, সন্ত্রাস ও যুদ্ধাপরাধীদের কোন স্থান নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসযজ্ঞ সাহসিকতার সাথে মোকাবেলার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধে জনসম্পৃক্ততা গড়ে তুলতে হবে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী পুলিশের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন এবং পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের সালাম গ্রহণ করেন। পরে অসীম সাহসিকতা ও সেবার জন্য পুলিশের ১৮২ জন সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক বিপিএম এবং প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক পিপিএম প্রদান করেন। জনসেবায় পুলিশ বাহিনীকে আরো সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির স্থিতিশীলতা যে কোন দেশের উন্নয়নের পূর্ব শর্ত।

বাংলাদেশের মাটিতে জঙ্গি, সন্ত্রাসী ও যুদ্ধাপরাধীদের কোনো স্থান নেই বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার রাজধানীর রাজারবাগে মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইনসে পাঁচ দিনব্যাপী পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮’র উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে আমাদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বিরাট ভূমিকা রেখেছে। এজন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা মনে করি, কোনো দেশের উন্নয়নের পূর্বশর্ত হলো স্থিতিশীল আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি। সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কার্যক্রমকে আরও গতিশীল করতে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে।’

এবছর পুলিশ সপ্তাহের প্রতিপাদ্য ‘জঙ্গি ও মাদকের প্রতিকার, বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গীকার’।