দেশের মানুষের প্রশংসা ও ভালোবাসায় সিক্ত মাই টিভি

0
174

জাহিদ আহমেদ বাবু:

সাফল্যের নয় বছর পেরিয়ে ১০-এ পা রাখলো জননন্দিত টেলিভিশন চ্যানেল মাই টিভি। দীর্ঘ এ পথ পরিক্রমায় মাই টিভি তার ব্যতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠান ও সংবাদ সম্প্রচারের মাধ্যমে কুড়িয়েছে দেশের মানুষের প্রশংসা ও ভালোবাসা।

দশম বর্ষে পদার্পনের শুভক্ষণে মাই টিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, নাসির উদ্দিন সাথী বলেন, ইউটিউিব সংস্কৃতির অস্থিরতাকে অতিক্রম করতে স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলগুলোকে সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা ও সহায়তা প্রদান একান্ত প্রয়োজন।

নদীর নাম কির্ত্তণখোলা। ছেলে বেলায় এখানেই সময় কাটান তিনি। দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী এই নদীর তীর সংলগ্ন অপরুপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত বরিশালের কাউনিয়ায় জানুকি সিংঘ রোডের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন মাই টিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন সাথী।

শৈশব থেকেই শিল্প-সাহিত্য,সংস্কৃতির প্রতি ছিল তাঁর একান্ত আগ্রহ এবং গভীর অনুরাগ। তাঁর প্রতিটি চিন্তা ভাবনা এবং কর্মকাণ্ড সারা জীবন ধরেই অতিবাহিত হয়েছে মিডিয়াকে ঘিরে।

নাসির উদ্দিন সাথীর দূরদর্শী পরিকল্পনা,দীর্ঘ অধ্যাবসায় ও কঠোর পরিশ্রমে গড়ে ওঠা,দেশ-বিদেশের কোটি দর্শকের প্রিয় টিভি চ্যানেল মাইটিভি ১৫ এপ্রিল পর্দাপণ করলো প্রতিষ্ঠার দশম বর্ষে।

জন্ম উৎসব পালন করতে প্রতি বছরের মতো এবারও মাই টিভি সেজেছে তার নতুন সাজে। এই শুভ মুহুর্তে মাইটিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির উদ্দিন সাথী জানিয়েছেন তার একান্ত অনুভূতির কথা।

সুদীর্ঘ বছরের বিরতীহীন কর্ম-প্রচেষ্টা এবং এক ঝাঁক উদ্যোমী মিডিয়া কর্মীর অক্লান্ত পরিশ্রমের সোনালী ফসল আজকের মাই টিভি। মাই টিভির সুযোগ্য স্বপ্নদ্রষ্টা নাসিরউদ্দিন সাথী প্রতিষ্ঠানের প্রধান পদে অধিষ্ঠিত থাকলেও কখনই নিজেকে তেমনটি ভাবেন না।

বিভিন্ন কাজের তাৎক্ষণিক নির্দেশনা এবং কাজের মধ্যে একজন সাধারন কর্মীর মতই ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করতে পছন্দ করেন তিনি। তাই নিয়োমিতভাবে সবার খোঁজ খবর নেন প্রতিটি বিভাগের।

নিজের হাতে তিলে তিলে গড়ে তোলা মাই টিভিকে নিয়ে তাঁর একটাই ভাবনা দর্শকের চাহিদা মেটাতে কিভাবে আরো অত্যাধুনিক এবং আরো নান্দনিক করা যায়।

বর্তমানে ইউটিউব সংস্কৃতির অস্থিরতা অপসংস্কৃতি রোধ এবং স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলের ক্রান্তিকাল উত্তরণে যথাযথ পৃষ্ঠপোষকতা ও প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের জন্যেও সরকারের প্রতি আহবান জানান তিনি।

মাই টিভির জন্মদিন এলেই তিনি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন প্রয়াত পিতা-মাতা আলতাফ হোসেন এবং মা ওমেদা বেগমকে। স্মরণ করেন দীর্ঘদিনের পথ-চলার সাথী প্রয়াত সহকর্মীদেরও।

এদিনে তিনি শুভেচ্ছা জানাতে ভুলে যান না মাই টিভির দর্শক, শুভ্যানুধ্যায়ী, সহকর্মী, বিজ্ঞাপনদাতা, ক্যাবল অপারেটর, শিল্পী ও কলা-কুশলীদেরও।

নিজের চিন্তা ভাবনা ও দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রসারিত করতে ভ্রমণ বিলাসী এবং সৃজনশীল এই মানুষটি মাঝে মধ্যেই ছুটে যান দেশ থেকে দেশান্তরে।