দেশে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৮০৩

0
304

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আরো পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। আর নতুন শনাক্ত হয়েছে ১৮২ জন। এ নিয়ে দেশে  এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের। আর করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে মোট ৮০৩ জনের শরীরে। 

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এতে সরাসরি অনলাইনে যুক্ত হন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৫৭০টি। এর মধ্যে ১৮২ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত মোট করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছেন ৮০৩ জন। করোনা থেকে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন তিনজন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ৪২ জন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৮৪ জনকে। এ নিয়ে বর্তমানে মোট আইসোলেশনে আছেন ২৯৯ জন। সর্বশেষ আইসোলেশন থেকে মুক্ত হয়েছেন ১৭ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন থেকে মুক্ত হয়েছেন ৪৩৭ জন। এতে জানানো হয়েছে, ঢাকা মহানগরীতে আইসোলেশন শয্যা আছে এক হাজার ৫৫০টি। আর ঢাকা মহানগরীর বাইরে বিভিন্ন জেলায় আইসোলেশন শয্যা ছয় হাজার ১৪৩টি। সব মিলিয়ে দেশে আইসোলেশন শয্যা সাত হাজার ৬৯৩টি।

কোয়ারেন্টিন প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিনে গেছেন পাঁচ হাজার ৬৮৪ জন। এ নিয়ে এ পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৮৫ হাজার ৪৯৮ জন। গত সর্বশেষ প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ৪৮৪ জন। এ পর্যন্ত মোট প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে দুই হাজার ১৮৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৪৫ জন। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিন থেকে মোট ছাড়া পেয়েছেন ৬৩ হাজার ২৭৬ জন। আর দেশের সব জেলা উপজেলায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৪৮৮টি প্রতিষ্ঠানকে। এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে কোয়ারেন্টিন সেবা দেওয়া যাবে ২৬ হাজার ৩৫২ জনকে।