নতুন ট্রেন্ড নিয়ে প্রশ্নের মুখে ফেইসবুক

0
177

নিজের কম বয়সের ছবি দেখতে কার না ভালো লাগে? আগে মোটা ছিলাম না শুকনা ছিলাম, তা নিজে দেখতে এবং অন্যদের দেখাতে অনেকেই শেয়ার করছেন ১০ বছর আগের ছবি।

এক দশক আগে তোলা সেই ছবির সঙ্গে জুড়ে দিচ্ছেন এখনকার ছবি।এটা আসলে একটা সোশ্যাল মিডিয়া ট্রেন্ড, যা পরিচিতি পেয়েছে ১০ ইয়ার চ্যালেঞ্জ বা গ্লো আপ চ্যালেঞ্জ নামে।

একই সঙ্গে ফেইসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটারে জনপ্রিয়তা পেয়েছে চ্যালেঞ্জ।তবে এই ট্রেন্ড ভাইরাল হওয়ার পর অনেকের মনেই সন্দেহ জেগেছে। নিতান্তই শখের বশে চ্যালেঞ্জটি গ্রহণ করে ব্যবহারকারীরা নিজেদের বয়স সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফেইসবুকের হাতে তুলে দিচ্ছেন কিনা তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

সোশ্যাল মিডিয়া বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, ফেইসবুক এই ছবিগুলো থেকে তথ্য সংগ্রহ করে তাদের ফেশিয়াল রিকগনিশন অ্যালগরিদমের উন্নয়ন ঘটাচ্ছে।নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটি স্টার্ন স্কুল অব বিজনেসের অধ্যাপক অ্যামি ওয়েবের মতে, মেশিন লার্নিংকে উন্নত করার সুবর্ণ সুযোগ এটি।

ফেইসবুক এমনভাবে মেশিন লার্নিংকে প্রশিক্ষণ দিতে পারছে যাতে ভবিষ্যতে ব্যবহারকারীদের চেহারার সামান্যতম পার্থক্যও ধরতে পারবে সিস্টেমটি।গত সপ্তাহে ১০ ইয়ার চ্যালেঞ্জটির সূচনা হয় ফেইসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটারে ।

এখন পর্যন্ত ফেইসবুক মালিকানাধীন ইনস্টাগ্রামে এ সংক্রান্ত ১৬ লাখ ছবি পোস্ট করা হয়েছে। মাত্র তিন দিনে ফেইসবুকে পোস্ট হয়েছে ৫২ লাখ ছবি।তবে এই ট্রেন্ড নিজেদের সুবিধার্থে ছড়ানো হয়নি বলে দাবি করেছে ফেইসবুক। তারা জানিয়েছে, কোনো এক ব্যবহারকারী এই চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেওয়ার পর থেকেই তা ভাইরাল হতে শুরু করে।