নৈরাজ্য চালালে আইনী ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি তোফায়েলে আহমেদের

0
61

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বিএনপির কোন শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি নিয়ে ভাবনা নেই সরকারের তবে নৈরাজ্য চালালে বসে থাকবে না আইনশৃংখলা বাহিনী।

মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এক কর্মশালায় অংশগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।  ‘তৈরি পোশাক শিল্পের সম্প্রসারণ এবং সহজীকরণ’ শীর্ষক এ কর্মশালার আয়োজন করে তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যাংকিং খাত নিয়ে আমাদের সতর্ক হতে হবে এবং বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। আজকে শুধু বাংলাদেশেই নয় ভারতেও একজন বড় ব্যবসায়ী গ্রেফতার হয়েছে। তাদের বিরোধীদলীয় নেতা সেদেশের প্রধানমন্ত্রীকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করেছে। অর্থাৎ সব দেশেরই ব্যাংকিং খাত নিয়ে যত্নবান হওয়া প্রয়োজন। এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয় বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নেবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশে ব্যাংক ঋণ নিয়ে কিছু সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। অনেকে জেলে আছে। কাউকে ছাড় দেয়া হয় নাই। আমরা ক্ষমতায় থেকে ঋণ দিতে সুপারিশ করি না। কেউ বলতে পারবে না। ব্যাংক তাদের নিয়মে ঋণ দিচ্ছে।

তবে ব্যাংকগুলোরে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে তাদের উচিত সঠিক নিয়ম মেনে ঋণ প্রদান করা। ভালো গ্রহককে ঋণ দেয়া। কারণ ব্যাংক ঋণ না দিলে ইন্ডাস্ট্রি বাড়বে না। ব্যাংকিং খাতের কারণে ব্যবসা প্রসার হচ্ছে। বড় বড় ইন্ডাস্ট্রি ব্যাংকের টাকা দিয়ে হচ্ছে। তবে ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক হতে হবে সঠিক জায়গায় ঋণ দিচ্ছি কিনা।

পানামা পেপারস ও প্যারাডাইস পেপার কেলেংকারিতে যাদের নাম এসেছে তাদের বিষয়ে সরকার কোনো পদক্ষেপ নিবে কিনা জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মানিলন্ডারিং বা অর্থপাচার বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক), বাংলাদেশ ব্যাংক ও অন্যান্য সংস্থা কাজ করছে।

এর আগে মানিলন্ডারিং অভিযোগে অনেকের বিষয়ে মামলা হয়েছে। সাজাও হয়েছে। পানামা পেপারস কেলেংকারিতে যাদের নাম এসেছে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু, বিজিএমইএর ভাইস প্রেসিডেন্ট (অর্থ) মোহাম্মদ নাছির প্রমুখ।