পচাঁত্তরের এই দিনে ইতিহাসের মহানায়ককে হত্যা করে বিপদগামী সেনারা

0
63

মানিক লাল ঘোষ:

পচাঁত্তরের এই দিনে বিপদগামী কিছু সেনা সদস্য ধানমন্ডিতে নির্মমভাবে স্বপরিবারে হত্যা করে ইতিহাসের মহানায়ক বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বিদেশে থাকায় সেদিন প্রাণে বেঁচে যান বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনা।

১৫ আগস্ট ১৯৭৫। ইতিহাসের কলঙ্কময় দিন। এইদিন অতিপ্রত্যুষে নিজ দেশের বিপদগামী সৈনিকদের হাতে ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বাড়িতে প্রাণ হারায় জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান। যে দেশবাসীর জন্য তিনি উৎস্বর্গ করেছিলেণ তার জীবন ও যৌবন সবটুকু সময়।

ঘাতকের নির্মম বুলেট কেড়ে নেয় বঙ্গবন্ধুর সহধর্মীনী বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, পুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশুপুত্র শেখ রাসেল, পুত্রবধু সুলতানা কামাল, রোজি জামাল, ভাই শেখ নাসের ও কর্নেল জামিল,  বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি,তার অন্তস্বত্তা স্ত্রী আরজু মনি। ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু সুকান্তবাবু, আরিফ,রিন্টু খানসহ অনেকে।

বিদেশে থাকায় সেদিন প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধু কন্য শেখ হাসিনা ও শেখ রেহোনা। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় এই ঘটনার নেপথ্যে ছিল মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তি আর আন্তজার্তিক ষড়যন্ত্র।

বঙ্গবন্ধু হত্যার পর এক এক করে পরিস্কার হতে থাকে খল নায়কদের মুখোশ। বঙ্গবন্ধুকে ইতহাস থেকে মুছে ফেলা, স্বাধীন বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ব্যাহত করার সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পথ ধরেই এগিয়ে যাবে আগামী বাংলাদেশ এমন প্রত্যায় জাতি আজ গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেছ তার স্বাধীনতার স্থপতিকে।