পাকিস্তানে ১ ডিমের দাম ৩০ রুপি, আদা কেজিপ্রতি ১০০০ রুপি!

0
333

মহামারি করোনা ভাইরাস সংকটের মধ্যেই মুদ্রাস্ফীতির কারণে নাজেহাল পাকিস্তান। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে যে, জিনিসপত্রের দাম সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে চলে গেছে। করোনা সঙ্কটের মধ্যেই নতুন করে জিনিসপত্রের দাম বাড়তে থাকায় বিপাকে রয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কিন্তু বর্তমানে পাকিস্তানের মুদ্রাস্ফীতি অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে। 

পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে গেছে যে, দেশটিতে একটি ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩০ রুপিতে। পাকিস্তানে এক ডজন ডিমের জন্য গুনতে হচ্ছে ৩৫০ রুপি।

শীত মৌসুমের কারণে পাকিস্তানে ডিমের চাহিদা বেড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম দ্য ডন। একইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে দামও।  

পাকিস্তানে প্রতিকেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ১০৪ রুপি। আর আদার দাম এক হাজার রুপি ও গম প্রতিকেজি ৬০ রুপিতে কিনতে হচ্ছে। এ প্রতিবেদন ডেইলি হান্টের।

দেশের অর্থনীতির হাল ফেরানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন ইমরান খান। কিন্তু এই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারেনি ইমরান সরকার।

পাকিস্তানে বর্তমানে ২৫ শতাংশের বেশি মানুষ দারিদ্র সীমার নিচে বসবাস করেন। এ ধরনের মানুষের একটি বড় অংশেরই খাদ্য তালিকায় ডিমের প্রাধান্য থাকে। কিন্তু সেটাও এখন নাগালের বাইরে। এছাড়াও জিনিসপত্রের দাম এতটাই বেড়েছে যে, সাধারণ মানুষের অনেকেই তাদের দৈনন্দিন নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতেও হিমশিম খাচ্ছেন।

গত বছরের ডিসেম্বর থেকেই পাকিস্তানে আর্থিক মন্দা শুরু হয়েছে। সে সময় ৪০ কেজি গম কিনতে দুই হাজার রুপি খরচ করতে হয়েছে। চলতি বছরের অক্টোবরে এই রেকর্ড ভেঙেছে। বর্তমানে প্রতি কেজি গম বিক্রি হচ্ছে ৬০ রুপিতে অর্থাৎ ৪০ কেজি গমের দাম ২৪শ রুপি।