এস এম খোরশেদ আলম : 

রাজধানীর অনেক রাস্তার মতো দীর্ঘদিন ধরেই দখলের কবলে গেন্ডারিয়া ফরিদাবাদ এলাকার প্রধান সড়কের কিছু জায়গা। একদিকে ময়লা আবর্জনা অন্যদিকে দোকান, ফলে চলাচলের জায়গা নেই বললেই চলে। দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডের দুর্গন্ধযুক্ত ময়লা আবর্জনায় ভরা রাস্তা দিয়েই চলাচল করছে লাখো মানুষ। তবে, আবর্জনার পাশেরই বিপরীত একটা চিত্র গড়ে তোলার চেষ্টা করছে এলাকার যুবকরা।  তারা রাস্তার ময়লা আবর্জনা ও দোকানপাট সরিয়ে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ গড়ে তুলেছে।

একই এলাকায় দুই ধরনের চিত্র। একদিকে ময়লা আবর্জনা ও অবৈধভাবে দোকান বসিয়ে রাস্তা দখল। আর অন্যদিকে, বাগান বানিয়ে মনোরম পরিবেশ তৈরী করা। এ দৃশ্য রাজধানীর গেন্ডারিয়া ফরিদাবাদ ও আর সিন গেইট এলাকার।

এই রাস্তাটি বছর খানেক আগেও ছিল ৩০ ফুট প্রশস্ত, সেটি এখন দখলের কারণে সংকুচিত হয়ে পরিনত হয়েছে ১৫ ফুটে।  ফলে চলাচল করতে পারছেন না এলাকার মানুষ। পূতি-দুর্গন্ধময় পরিবেশের কারণে রোগ বলাই লেগেই আছে। কিন্তু কোন পদক্ষেপ নেই দায়িত্ব প্রাপ্তদের।

কার নির্দেশে রাস্তা দখল করে এই সব দোকান চলছে জানাতে চান না কেউ। আর এটি একই রাস্তার ঠিক মাঝখানে ময়লা আবর্জনা সরিয়ে পানির ফোয়ারা ও বাগান বানানো হয়েছে। এই মুগ্ধকর পরিবেশ সৃষ্টি কষ্টসাধ্য হলেও নিজস্ব অর্থায়নে করেছে এলাকার যুব সমাজ। দুর্গন্ধ থেকে নিস্কৃতি পেতে অনেকেই বিশুদ্ধ হাওয়ায় শুদ্ধ হতে এখানে এসেছেন।

জনস্বার্থে এবং গ্রীন সিটি তৈরির এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এলাকার জনপ্রতিনিধি। প্রতিটি এলাকায় যুব সমাজ এমন উদ্যোগ করবেন এ প্রত্যাশা সকলের।