পুলিশের কেউ দুস্কর্ম করলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
61

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, দেশে জঙ্গিবাদ শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা হয়েছে। পুলিশ বাহিনী জঙ্গি-সন্ত্রাস নির্মূলে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশে কোনো সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ঠাঁই হবে না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, দেশের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশের অবদানের কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, যদি পুলিশের কেউ দুস্কর্ম করে তাহলে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। জঙ্গিবাদ ও দেশের সার্বিক আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সরকার সর্বদাই জিরো টলারেন্স নীতিতে আছে। কেউ অপরাধ করে ছাড় পাবে না।

বৃহস্পতিবার লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় নবনির্মিত থানা ভবন উদ্ধোধনকালে তিনি এ কথা বলেন। থানা ভবন উদ্ধোধন শেষে এক মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালের আগে দেশের অবস্থা কী ছিল, আপনারা তা ভালো করেই জানেন। দুর্নীতিতে ৫বার চ্যাম্পিয়ন হয়ে জাতিকে লজ্জায় ডুবানো হয়েছিল। এখন সে অবস্থা নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশ আজ অনেক এগিয়েছে।

দূর হয়েছে দুর্নীতি। দেশের সর্বত্রই এখন বইছে উন্নয়নের জোয়ার।
রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আজ পর্যন্ত দেশে প্রায় ১১লাখ মিয়ানমার নাগরিক আশ্রয় নিয়েছে। একদিকে মিয়ানমারে জ্বালিয়ে পুড়ে নিঃস্ব করা হচ্ছে অপরদিকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বাস্তুহারা ওইসব নাগরিককে বুকে জড়িয়ে মানবতার পরিচয় দিচ্ছেন। এই কারণে তিনি সারা বিশ্বের কাছে মাদার অব হিউম্যানিটি খেতাবে ভুষিত হয়েছে।

থানা ভবন উদ্ভোধন উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকালে জেলার হাতীবান্ধা থানা চত্বরে এক সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি, মোতাহার হোসেন এমপি, সফুরা বেগম রুমী এমপি, রংপুর রেঞ্জের পুলিশের ডিআইজি খন্দকার গোলাম, জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এড. মতিয়ার রহমান প্রমুখ।

গণপূর্ত বিভাগের তত্বাবধায়নে ৬কোটি টাকা ব্যায়ে ৬তলা ভিত্তির ওপর আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত ৪তলা হাতীবান্ধা থানা ভবন নির্মাণ সম্পন্ন হয়।