ফাহিম সালেহ হত্যাকান্ডে সাবেক ব্যক্তিগত সহকারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

0
532

বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ‘পাঠাও’-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফাহিম সালেহকে (৩৩) হত্যার দায়ে তার সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী টাইরেস ডেভন হাসপিলের (২১) বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশের পক্ষ থেকে এটি নিশ্চিত করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ফাহিম সালেহ হত্যায় অভিযুক্ত তার সাবেক ব্যক্তিগত সহকারী টাইরেস ডেভেন হাসপিলের বিরুদ্ধে সেকেন্ড ডিগ্রী মার্ডারের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগের প্রধান ডিটেকটিভ রোডনি হ্যারিসন সাংবাদিকদের বলেন, ফাহিমের অর্থনৈতিক ও ব্যক্তিগত বিষয়গুলো তদারকি করতো সন্দেহভাজন হাসপিল। ফাহিমের কাছ থেকে হাসপিল ১ লাখ মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৮৫ লাখ) ধার করেছিল বলে জানা গেছে। এ টাকা ফেরত দেয় নি হাসপিল। তবে টাকা ফেরত না দেয়ায় পুলিশকে অবহিত করেননি ফাহিম। তিনি ওই অর্থ ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য তার সহকারীকে একটি পরিকল্পনা দেন। তবে তার সহকারী অর্থ ফেরত না দিয়ে তাকে হত্যা করার পথ বেঁছে নেন।

তদন্তে উঠে এসেছে, হাসপিলের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ম্যানহাটনের ওয়েস্ট ২৩ স্ট্রিটের একটি দোকান থেকে অপরাধস্থল পরিষ্কার করার স্যানিটাইজার সামগ্রী ক্রয় করা হয়েছে। ফাহিমের লাশের পাশে যে টিজার পাওয়া গেছে সেটির সিরিয়াল নাম্বারও খুনি হিসেবে হাসপিলকেই নির্দেশ করে। হত্যাকাণ্ডের পরদিন আবারো ফাহিমের অ্যাপার্টমেন্টে যায় খুনি, ঘটনাস্থল পরিষ্কার করতে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার নিউইয়র্ক সিটির লোয়ার ইস্ট ম্যানহাটনের বিলাসবহুল কনডোমিনিয়াম (অ্যাপার্টমেন্ট) থেকে ফাহিমের টুকরো করা লাশ উদ্ধার করে নিউইয়র্ক পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ফাহিমের শরীরে বেশ কয়েকটি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ঘাড় ও কাঁধে ছুরির আঘাতের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।