বস্তিবাসীদের সঠিক পরিসংখ্যান নেই দুই সিটি করপোরেশনে

0
241

জাহিদ আহমেদ বাবু : প্রয়োজনীয় লোকবলের অভাবে বস্তিবাসীদের সঠিক পরিসংখ্যানের কাজটি বিলম্বিত হচ্ছে বলে জানিয়েছে রাজধানীর দুই সিটি কর্পোরেশন। আর সরকারী শুমারিতে নগরীর বিভিন্ন বস্তি এবং বস্তিতে বসাবসকারি লোক সংখ্যার কোনো সঠিক হিসেব নেই বলে জানিয়েছেন নগর পরিকল্পনাবীদরা।

কালের বিবর্তনে বড় বস্তিগুলো উচ্ছেদ করে নির্মান করা হয়েছে বহুতল ভবন,মার্কেট অথবা সরকারী অফিস।
তবুও কমেনি বস্তির সংখ্যা। কেউ কেউ সরকারি জমি দখল করে, কেউ বা নিজের জায়গায় গড়ে তুলেছেন বস্তি। উদ্দেশ্য একটাই নিম্ন আয়ের মানুষের সাথে ভাড়া বানিজ্য।

সংসদে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর তথ্য মতে রাজধানীতে বর্তমানেবস্তির সংখ্যা ৩.৩৯৪টি। এর মধ্যে ২০১৪ সালে সর্বশেষ শুমারি অনুযায়ী ঢাকা উত্তরে ১.৬৩৯টি ও দক্ষিণে ১.৭৫৫টি বস্তি আছে বলে জানানো হয়।

এ তথ্যের সাথে দ্বিমত পোষন করেছেন নগর পরিকল্পনাবিদ প্লানার্স এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক ড. আদিল মোহাম্মদ। তিনি জানান এই কয় বছরে বস্তি এবং বস্তির লোক সংখ্যা অনেক বেড়েছে।

পরিসংখ্যান ব্যুরোর শুমারি বিভাগে খোঁজ নিয়ে জানা গেল দশ বছর পরপর শুমারি হওয়ার কারনে বর্তমান পরিসংখ্যান জানানো কঠিন। আর নগরীর ২ সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়ন বিভাগের কাছেও নেই বস্তিবাসীদের কোনো হালনাগাদ পরিসংখ্যান।

প্রতিবছর বস্তি বাসির উন্নয়নের নামে সরকারি অর্থ বরাদ্দ থাকলেও প্রকৃত অর্থে বস্তির কোনো উন্নয়ন হচ্ছে না বলে অভিযোগ তাদের।তবে বস্তিবাসীর অভিমত সরকারের গৃহীত পরিকল্পনা যথাযথ বাস্তবায়িত হলে দেশে আর কোনো বস্তির প্রয়োজন হবে না।