বাংলাদেশের মানুষকে শুভেচ্ছা ও বন্ধুত্বের বার্তা পোপের

0
49

রোমান ক্যাথলিক প্রধান পোপ ফান্সিস বাংলাদেশ সফরে আসছেন এই বিষয়টি প্রায় ৬ মাস আগে নিশ্চিত করা হয়েছিল। তার সফরকে ঘিরে কয়েক মাস আগে থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার ও খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীরা।

বর্তমান পোপ যেখানেই কোনো বিপর্যয় ঘটে সেখানেই বানী দেন। তিনি মানবতাবাদী একজন ধর্মগুরু হিসেবে সবার কাছে পরিচিত পেয়েছেন। রোহিঙ্গা ইস্যুসহ আন্তর্জাতিক যে কোনো মানবিক বিপর্যয়ে নিজের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

আগামী ৩০ নভেম্বর বাংলাদেশ সফরে আসছেন মানবতাবাদী রোমান ক্যাথলিক চার্চের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস। এই সফরের আগে বাংলাদেশের মানুষকে শুভেচ্ছা ও বন্ধুত্বের বার্তা পাঠিয়েছেন ফ্রান্সিস।

এক ভিডিওবার্তায় বাংলাদেশে খ্রিস্ট ধর্মের অনুসারীদের আশীর্বাদ জানান পোপ। মঙ্গলবার ভ্যাটিকান রেডিওর ওয়েবসাইটে পোপের ভিডিও বার্তাটি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে  নভেম্বর বাংলাদেশে আসছেন পোপ ফ্রান্সিস।

ভিডিওবার্তায় পোপ বলেন, বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে মিলিত হতে এবং তাদেরকে যিশুর পুনর্মিলন, ক্ষমা এবং শান্তির বাণী শোনানোর অপেক্ষায় আছি। বাংলাদেশ সফরের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। বাংলাদেশের মানুষকে আমি শুভেচ্ছা ও বন্ধুত্বের বার্তা জানাতে চাই। আমি অপেক্ষায় আছি সেই সময়ের, যখন আমরা মিলিত হব।

বাংলাদেশ সফরে পোপ ফ্রান্সিস রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়া বাংলাদেশের খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের একটি উপাসনা অনুষ্ঠানে তিনি যোগ দেবেন।

বাংলাদেশের কার্ডিনাল, আর্চবিশপ ও বিশপদের সাক্ষাৎ দেবেন পোপ ফ্রান্সিস। তাছাড়া একটি নাগরিক সমাবেশেও অংশগ্রহণ করবেন তিনি। এরপর তিনি মিয়ানমারও সফর করবেন।

এর আগে তিনি মিয়ানমার সরকারকে মানবিক বিপর্যয় থেকে রোহিঙ্গাদের সুরক্ষার জন্য তাগিদ দিয়েছেন। মিয়ানমারের বর্বরতা বন্ধের আহবান জানিয়েছেন। এবার তিনি নিজে সফর করবেন।

নিচে পোপের ভিডিও বার্তাটি দেওয়া হলো-