বিএনপির নেতারাই খালেদা জিয়ার কারামুক্তি চায় না: হাছান মাহমুদ

0
72

বিএনপির যে সব নেতারা মনে করে খালেদা জিয়া কারাগারে থাকলে তাদের ভোট বাড়ে তারাই খালেদা জিয়ার কারামুক্তি চায় না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে তাদের কর্মকাণ্ড নাটক ছাড়া আর কিছুই নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতি জোট আয়োজিত কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৭ তম জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, বিএনপির নেতার বলেছেন তারা নাকি ভিন্ন কৌশলে আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবেন। কৌশলটা দুইটি হতে পারে। একটি হচ্ছে ২০১৩,১৪,১৫ সালে আমরা দেখেছি আন্দোলনের নামে পেট্রোল বোমা মেরে মানুষকে পুড়িয়ে মারার কৌশল। আরেকটি হচ্ছে ষড়যন্ত্র।

তিনি আরও বলেন, ষড়যন্ত্রের কথাটি ড.কামাল হোসেন মুখফসলে বলে দিয়েছেন জাতীয় নির্বাচনও স্থগিত হতে পারে। এই বক্তব্যের মাধ্যমে ড. কামাল হোসেনদের ষড়যন্ত্র বেরিয়ে এসছে। দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যহত থাকুক এটা তারা চায় না। কামাল হোসেনরা ১/১১ সরকারের কুশিলব ছিলেন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তিনি আইনী ফতওয়া দিয়েছিলে এ সরকার তিন মাস নয় আরও দীর্ঘ সময় ক্ষমতায় থাকতে পারবে।

গাজীপুর সিটির নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়ে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, গাজীপুর সিটি নির্বাচন স্থগিত হওয়ায় আওয়ামী লীগ হতাশ হয়েছে। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিপুল ভোটে জয় লাভ করতো।

হাছান মাহমুদ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রসঙ্গে বলেন, সাহিত্য ও সংস্কৃতির এমন কোনো স্থান নেই যেখানে বিশ্বকবির স্পর্শ নেই। তিনি শুধু বাংলা সাহিত্য নয় বিশ্বসাহিত্যকেও সমৃদ্ধ করেছে। তিনটি স্বাধীন দেশের জাতীয় সংগীত তিনি রচনা করেছে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা লায়ন চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, সাবেক সংসদ সদস্য চিত্র নায়িকা সারাহ বেগম কবরী প্রমুখ।