বিদেশি দর্শকহীন হবে টোকিও অলিম্পিক এবং প্যারালিম্পিক

0
58

বিদেশি দর্শক ছাড়া পিছিয়ে যাওয়া ২০২০ টোকিও অলিম্পিক এবং প্যারালিম্পিক আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাপান সরকার। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটিও জাপান সরকারের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। করোনার প্রকোপ সারাবিশ্বে আবার বেড়ে যাওয়ায় এবং জাপানে সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। 

এদিকে অলিম্পিক আয়োজক কমিটির চিফ এক্সিকিউটিভ তোশিরো মুতো জানান, অলিম্পিকের জন্য ৬ লাখ এবং প্যারালিম্পিকের জন্য কেনা ৩ লাখ বিদেশি নাগরিকের টিকিটের অর্থ ফেরত দেয়া হবে। তবে এজন্য মোট কী পরিমাণ অর্থ ব্যয় হবে সে বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি তিনি।

গত বছর টোকিও অলিম্পিক হওয়ার কথা ছিল। তবে কোভিড-১৯ বিশ্বজুড়ে ভয়াবহ আকারে দেখা দিলে আসরটি এক বছর পিছিয়ে দেওয়া হয়। স্থগিত করা হয় প্যারালিম্পিকও। 

এ বছরের অলিম্পিক ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে এবং শেষ হবে ৮ আগস্ট। প্যারালিম্পিক চলবে ২৪ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। ২০০ এর বেশি দেশ থেকে প্রায় ১১০০০ অ্যাথলেট অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করবে। তাদের সবার কোভিড সুরক্ষায় বিশাল অঙ্কের অর্থ ব্যয় হচ্ছে আয়োজকদের। 

জাপানের গণমাধ্যমের খবর, টোকিও অলিম্পিক পরিচলনা করতে ২৮০ কোটি ডলার খরচের হিসেব দিয়েছে অলিম্পিক কমিটি। যার মধ্যে করোনা প্রতিরোধেই ব্যয় ধরা হয়েছে ৯০ কোটি ডলার।

জাপানে সাড়ে চার লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন প্রায় পাঁচ হাজার জন। অন্য উন্নত দেশের তুলনায় জাপানে করোনার প্রকোপ কম। কিন্তু জাপানে এখন আবার করোনা ছড়াচ্ছে। তাই দেশটির সরকার এখন বিদেশিদের ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছে।