বিপ টেস্টে সর্বোচ্চ স্কোর সাকিবের

0
226

নিষেধাজ্ঞা শেষে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তনের আগে দেশের অন্য সব ক্রিকেটারের মত ফিটনেস টেস্ট দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানও।

দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে থাকলেও ফিটনেস নিয়ে যে ভালোই কাজ করেছেন সাকিব আল হাসান, তা বোঝা গেল বিপ টেস্টের ফলাফলে। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের আগে ফিটনেস পরীক্ষায় বিপ টেস্টে সর্বোচ্চ স্কোর করেছেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

দেশসেরা এই অলরাউন্ডারের স্কোর ছিল ১৩.৭। যেখানে বেঞ্চমার্ক ছিল ১১। গত দুই দিন বিসিবির উদ্যোগে ক্রিকেটারদের মধ্যে নেওয়া বিপ টেস্টে সাকিবেরটাই ছিল সর্বোচ্চ স্কোর। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উঠতি পেসার মেহেদি হাসানের। কুমিল্লার এই পেসার করেছিলেন ১৩.৬।

বুধবার সকালে ‘হোম অব ক্রিকেট’ খ্যাত মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপ টেস্ট দেন সাকিব।

৩৭৬ দিন পর গত সোমবার সাকিব এসেছিলেন শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে। ফিটনেস পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল সেদিনই। কিন্তু প্রস্তুত না থাকায় দুদিন পরে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। বুধবার তার সেই টেস্ট হয়েছে। সেটাতেই সবাইকে চমকে দিয়েছেন সাকিব।

সাকিবের বিপ টেস্ট নিয়েছেন হাইপারফরম্যান্স ইউনিট ও জাতীয় ক্রিকেট দলের ট্রেনার নিক লি। পরীক্ষা শেষে এই তারকা অলরাউন্ডারকে নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সাকিব ভালো করেছে। সবকিছুই ঠিকঠাক ছিল। একদম ঠিক ছিল।’

এক বছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাকিবের ফিটনেস নিয়ে কৌতুহল ছিলো ক্রিকেটপ্রেমিদের। তবে দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে থাকলেও ফিটনেসের দিকে নজর ঠিকই ছিল সাকিবের। বিপ টেস্টে সেটাই প্রমানিত হল।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের প্লেয়ার ড্রাফট। ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ ক্রিকেটার, জাতীয় দল, এইচপির খেলোয়াড় মিলিয়ে প্রায় শতাধিক ক্রিকেটার থাকছেন এই ড্রাফটে।