বিরুষ্কার সঙ্গে রাজ-শুভশ্রীর বিয়ের পার্থক্য

0
1022

টলিউডের ‘রাজ’কীয় বিয়ে বলে কথা। স্বাভাবিকভাবেই চলছে তার চর্চা। নিন্দুকেরা তো আবার রাজ-শুভশ্রীর সঙ্গে বিরুষ্কার বিয়ের একাধিক মিলও খুঁজে পেয়েছেন। তবে যে যাই বলুক, বিরুষ্কার সঙ্গে রাজ-শুভশ্রীর বিয়ের অমিলও রয়েছে প্রচুর।

বিরুষ্কা যে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন তার টের পায়নি দেশের কোনও মিডিয়াই। চুপিসাড়ে ইতালির তাস্কানিতে গিয়ে টুক করে বিয়েটা সেরে এসেছিলেন বিরাট কোহলি এবং অানুষ্কা শর্মা।

রাজ আর শুভশ্রী কিন্তু বিয়ের সবটাই আপনজন থেকে শুরু করে সংবাদ মাধ্যম সকলকেই প্রায় জানিয়ে করেছিলেন। সেই বাগদান পর্বের সময়েই প্রায় সকলে জেনে গিয়েছিলেন তাঁদের বিয়ের তারিখ।

কেবল পরিবারের কয়েকজনকে নিয়েই ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েছিলেন বিরুষ্কা।

রাজ আর শুভশ্রী কিন্তু সেই রাস্তায় হাঁটেননি। বিয়ের দিন দুই পরিবারের সদস্যরা তো ছিলেনই,

সঙ্গে ছিলেন বন্ধু-বান্ধব এবং আরও অনেকে। রাজ-শুভশ্রীর রিসেপশনে যাঁদের দেখা গিয়েছে, বিয়ের দিনে তাঁরাও নিমন্ত্রিত ছিলেন।

দু’টি রিসেপশন পার্টি দিয়েছিলেন বিরুষ্কা। একটি দিল্লিতে আরেকটি মুম্বাইতে।

রাজ-শুভশ্রী কিন্তু একটিই রিসেপশন পার্টি রেখেছিলেন।

বিরুষ্কার দিল্লির রিসেপশনে পৌঁছে গিয়েছিলেন খোদ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ছিলেন আরও অনেক নেতা-মন্ত্রীরা। রাজ-শুভশ্রীর রিসেপশনেও এসেছিলেন অনেক নেতা মন্ত্রীই।

মুখ্যমন্ত্রীও নিমন্ত্রিত ছিলেন, তবে তাঁকে দেখা যায়নি। তবে তাঁর প্রতিনিধি হিসেবে হাজির ছিলেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

বিরুষ্কার রিসেপশনে গানের বিরাট আসর বসেছিল। যেটা রাজ আর শুভশ্রীর বিয়েতে চোখে পড়েনি।

গুরুদাস মানের গানে বিরুষ্কার সেই নাচও বোধ হয় অনেকের স্মৃতিতে তাজা।

আবার ঘরোয়া গানের অনুষ্ঠানেও বিরাট গান গেয়ে শুনিয়েছিলেন অনুষ্কাকে। কিন্তু রাজকে সে সব করতে দেখা যায়নি।

ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ে বিরাটরা গিয়েছিলেন বিদেশে, আর দেশের মধ্যে মানে এক্কেবারে বজবজে বাওয়ালি রাজবাড়িতে বিয়ে সারেন রাজ।