বুড়ো চেহারার আড়ালে তথ্য চুরি !

0
293

মুবাল্লিগ করিম : গতকয়েকদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়া বৃদ্ধ মানুষের ছবিতে সয়লাব হয়ে গেছে। এগুলোর বেশিরভাগই আসল ছবি নয়। একধরনের অ্যাপ ব্যবহার করে অনেকেই নিজের চেহারাবৃদ্ধ বয়সে কেমন হবে সেটার একটা অনুমান নির্ভর ছবি বানাচ্ছেন, তারপর নিজেরাই ছড়িয়ে দিচ্ছেন। ব্যবহারকারীরা একে শুধু বিনোদনের উদ্দেশ্যে নিলেও এই অ্যাপ নির্মাতারা অনেকের অজান্তেই হাতিয়ে নিচ্ছে অনেক গোপন তথ্য।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ট্রেন্ড দেখা যাচ্ছে, আগামী ৪০, ৬০ বছর পর বা ৮০ বছর পর নিজের চেহারা দেখতে কেমন হবে? আর নিজের চেহারা কেমন হবে, তার উত্তর পেতে অ্যাপ ব্যবহারকারীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন এসব মাধ্যমে। শুধু বিনোদনের উদ্দেশ্যেই ব্যবহারকারীরা এমনটি করছেন বলেও জানিয়েছেন।

ফেসঅ্যাপটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে এবং কিছু ফিল্টার ব্যবহার করে ভবিষ্যতে ব্যবহারকারীর চেহারা দেখতে কেমন হবে তা জানিয়ে দেয়। ২০১৭ সালে এটির প্রথম সংষ্করণ প্রকাশ হয়েছিল। এবার ২০১৯ সালে এসেও গুগল প্লে-স্টোর ও অ্যাপ-স্টোরে থাকা এই অ্যাপটি ভাইরাল হওয়া শুরু করেছে।

তবে এ্যাপটি নিয়ে সমালোচনাও কমতি নেই। অ্যাপটি ডাউনলোডের সময় ইন-অ্যাপ পারচেজ, ফটো ও মিডিয়া ফাইল, ডিভাইস স্টোরেজ ও মাই ক্যামেরা অপশনের অনুমতি দিতে হয়। তাই শুরু থেকেই ফেসএ্যাপের মাধ্যমে ব্যবহারকারির তথ্যচুরির অভিযোগ রয়েছে।

যদিও অ্যাপ কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, তারা তৃতীয় পক্ষের কাছে ব্যবহারকারীর এসব তথ্য হস্তান্তর বা বিক্রি করে না। কিন্তু ফেসবুক কর্তৃপক্ষও অনেক আগে থেকেই একই কথা বলে আসছিল। সম্প্রতি ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসের দায়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন ফেসবুককে ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করে। তাই সাবধানতা অবলম্বনের দায়িত্ব কিন্তু এর ব্যবহারকারির হাতেই।