ভাঙ্গনের কবলে শরীয়তপুরের জাজিরা ও নড়িয়া উপজেলার পদ্মার পাড়

0
63

এবিএম মামুন : গত ১৮ জুন থেকে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে শরীয়তপুরের জাজিরা ও নড়িয়া উপজেলার পদ্মার পাড় এলাকা। গত প্রায় ২ সপ্তাহে নদীর শ্রোত বাড়তে থাকায় প্রায় ৩০০ মিটার এলাকা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। দ্রুত সাময়িক পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

গত বছর নদী ভাঙ্গনের রেশ কাটিয়ে না উঠতেই, এ বছর বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই জাজিরা উপজেলার কয়েখটি ইউনিয়নে শুরু হয়েছে আগাম ভাঙ্গন।

ইতিমধ্যে মোক্তারেরচর ইউনিয়নের শেহেরআলী মাদবরের কান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি নদীথেকে ১শ মিটারের কম দুরত্বে থাকায় নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার আশংকায় রয়েছে। ভাংন আতংকে উল্লেখযেগ্য হারে কমেছে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি।

ভাঙ্গন আতংকে পদ্মাপারের মানুষেরা তাদের ঘড়বাড়ি সরাতে শুরু করেছে।

নানা জটিলতার কারনে পদ্মার ডানতীর রক্ষার কাজশুরু করতে দেরি হলেও আগামী ২ মাসের মধ্যে কাজ শুরু করার আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: শফিকুল ইসলাম।

এছাড়া দ্রুত জরুরী পদক্ষেপের মাধ্যমে সাময়িক ভাঙ্গন রোধের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের। শরীয়তপুরের পদ্মা তীরবর্তী ভাঙ্গন কবলিত পরিবারগুলো আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। দ্রুত ভাঙ্গন রোধের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন তারা।