ভারতীয়দের থেকে পাকিস্তানের শেখা উচিৎ: মালিক

0
52

এশিয়া কাপের ফাইনালে যোগ্যতা অর্জনের লক্ষ্যে বুধবার বাংলাদেশের মুখোমুখি পাকিস্তান। আর বুধবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জয় মানে আগামি শুক্রবার ফাইনালে আরও একবার পাকিস্তানের প্রতিপক্ষ ভারত।

এমনটা হলে চলতি টুর্নামেন্টে তৃতীয়বারের জন্য একে অপরের মুখোমুখি হবে দুই দল। যা কার্যত নজিরবিহীন। তবে বাংলাদেশ ম্যাচের আগে টুর্নামেন্টে ভারতের বিরুদ্ধে তাদের জঘন্য পারফরম্যান্স স্বস্তি দিচ্ছে না পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্টকে।

‘মেন ইন ব্লু’ টুর্নামেন্টে প্রতি ম্যাচে যেভাবে নিজেদের মেলে ধরছে, সে পথেই টুর্নামেন্টে বাজিমাৎ করতে চাইছে পাক দল। ভারতের বিরুদ্ধে দুটি জঘন্য হারের পর পাক কোচ মিকি আর্থার জানিয়েছিলেন, ভারতীয় ওপেনার ও বোলাররা যেভাবে তাদের পরিকল্পনা কার্যকর করেছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। ওদের থেকে আমাদের শেখা উচিৎ।

কোচ মিকি আর্থারের কথায় সুর মিলিয়ে একই মত শোয়েব মালিকের। এদেশের জামাইয়ের কথায়, ‘ভারতীয় ক্রিকেট ব্যবস্থা থেকে পাকিস্তানের শেখা উচিৎ। মালিক আরও জানিয়েছেন, ‘দলে কোন নতুন সিস্টেমের ইতিবাচক ফলাফল পেতে গেলে সময়ের প্রয়োজন হয়।

সেজন্য ভয় পেয়ে খেলোয়াড় পরিবর্তনের প্রয়োজন নেই। কারণ নতুন খেলোয়াড়রা দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আরও সময় নেবে। আমাদের উচিৎ ভারতের সিস্টেম অনুসরণ করা। তারা কিভাবে তাদের খেলোয়াড়দের প্রস্তুত করছে।’

মালিকের মতে, নতুন প্রতিভাদের মনে আত্মবিশ্বাস জাগানোর দায়িত্ব দলের সিনিয়রদের। এক্ষেত্রে কোচ মিকি আর্থারকে আরও একবার সমর্থন জানিয়েছেন প্রাক্তন পাক দলনেতা।

দলে এইমুহূর্তে আত্মবিশ্বাসের অভাব রয়েছে বলে জানিয়েছেন মালিক। সে কারণে ২৭০টি ওয়ান ডে ম্যাচের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ক্রিকেটারের কথায়, ‘দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের কাজ শুধুমাত্র পারফর্ম করা নয়। জুনিয়রদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের আত্মবিশ্বাসী করে তোলাও তাদের অন্যতম কাজ। জুনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে সিনিয়রদের এই বোঝাপড়াই কোন দলকে সঠিক দিশায় পৌঁছে দিতে পারে।’

এশিয়া সেরার লড়াইয়ে ভারতের বিরুদ্ধে দুটি ম্যাচে হেরে শেষ কয়েকদিনে বেশ টালমাটাল পাক দলের অন্দরমহল। তবে এই পরিস্থিত থেকে দলকে বের করে আনতে উদ্যোগী শোয়েব মালিক। ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হওয়ার আগে সেমিফাইনালে বাংলাদেশকে হারাতে নিজের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চান তিনি।