সাইদুর রহমান আবির:

তীব্র যানজট থেকে রেহাই পেতে এবার রাজধানীর সড়কগুলোতে ভিআইপি এবং সেবাসংস্থার গাড়িগুলোর জন্য ভিআইপি লেন রাখার প্রস্তাব দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

আর এমন প্রস্তাব বাস্তবায়ন করা কতটা সম্ভব তা নিয়ে শুরু হয়েছে নানা পর্যবেক্ষন। সড়কের প্রশস্ততার অভাবই এমন প্রস্তাব বাস্তবায়নে বাধা হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এমন প্রস্তাব সামনে রেখে বিশ্লেষকদের মন্তব্য নিয়ে এবারের মাই সার্চ।

ঢাকা মহানগরীতে সাত বছরে যন্ত্রচালিত গাড়ি বেড়ে দাড়িয়ে দ্বিগুন হয়েছে। প্রতিদিন গড়ে চারশ যন্ত্রচালিত গাড়ি নামছে, ঢাকায় যানবাহন বাড়ছে অনিয়ন্ত্রিতভাবে।

রিপোর্টার: সাইদুর রহমান আবির

বেসরকারি হিসেব অনুযায়ী ঢাকায় রিকশা আছে প্রায় ১০ লাখ। প্রতিনিয়তই যান্ত্রিক এবং অযান্ত্রিক যানবাহনের সংখ্যা বেড়েই চলছে, আর সৃষ্টি হচ্ছে তীব্র যানযটের।

এমন বাস্তবতায় গত মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে রাজধানীর অসহনীয় যানযট থেকে মুক্তি পেতে এবার সরকারের অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং সেবা সংস্থার যানবাহনের জন্য ঢাকার সড়কে আলাদা ও সংরক্ষিত লেন রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে।

প্রস্তাবটি পর্যবেক্ষণের ইতোমধ্যেই পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ ডিটিসিএর কাছে।

রাজধানী ঢাকার এমন বাস্তবতায় এই প্রস্তাব বাস্তবায়ন করা কতটা সম্ভব তা নিয়ে কথা হয় বিশ্লেষকদের সাথে। এই প্রস্তাব কেন্দ্র করে বিভিন্ন দিক তুলে ধরছেন বিশ্লেষক।

এমন প্রস্তাব বাস্তবায়নে আইনের ব্যাখ্যা দিলেন মানবাধিকার বিষয়ক অন্যতম আইনজীবী এডভোকেট মনজিল মোরশেদ। তবে সেবা সংস্থার অর্থাৎ এ্যাম্বুলেন্স ও ফায়ার সার্ভিসের যানবাহনগুলোর বিষয়ে একই অবস্থানে কথা বলছেন তারা।