এস এম খোরশেদ আলম : চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে পড়ে, সে অনুযায়ী কাজও হয়। আর এমন ধরনের কাজেই দেশের উন্নয়ন ও সাধারণ মানুষের কল্যানে সব সময় পাশে থাকে জনপ্রিয় চ্যানেল মাইটিভি।

তার নিদর্শনও রয়েছে রাজধানী থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে।

ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের আজিমপুর এলাকার রাস্তা ঘাটের খানাখন্দ জলাবদ্ধতা যানজট, সাধারন মানুষের খেলাধুলার মাঠ ও মসজিদের চাহিদা নিয়ে মাইটিভিতে প্রতিবেদন প্রচারিত হয়েছিল ২০১৭ সালেরর ২৭ মার্চ।

প্রতিবেদন প্রচারিত হওয়ার পর দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্তৃপক্ষের নজরে আসে জনগণের দাবী।

উদ্যোগ নেয়া হয় দাবী পুরনের। যেমন কথা তেমন কাজ, সঙ্গে সঙ্গে পরিকল্পনা করে শুরু হয় সেই কাজগুলো। প্রতিবেদনের একটি বিষয় ছিল আজিমপুর গোরস্থানের রাস্তা মেরামত ও আধুনিক সুবিধা সম্বলিত মসজিদ নির্মান।

বর্তমানে রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ হলেও ৩০ শতাংশ কাজ বাকী আছে মসজিদটির। আর এটি একই এলাকার খেলার মাঠ,পূর্বে যার কোন অস্তিত্ব ছিল না।

প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হওয়ার পর, উদ্যোগ নেয়া হয় খেলার মাঠ নির্মানের। কিছুটা ধীরগতি হলেও নির্মান কাজ চলমান। আর এই এলাকার রাস্তার অবৈধ দোকান পাট প্রতিবেদনের পর উঠিয়ে দিলেও আবারো চলছে দোকানদারী। যা কারোই কাম্য নয় ।

এই সকল কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হওয়াকে মাইটিভির অবদান বলে স্বীকার করেছেন এলাকাবাসী।

রাজধানীর ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের কামরাঙ্গীর চড় এলাকার ঢাকা বুড়ীগঙ্গা আদি চ্যানেলের, যা মাইটিভিতে প্রচারিত হয়েছিল ২০১৮ সালের জানুয়ারীতে। প্রতিবেদনের পর কিছুটা উন্নয়ন হলেও পড়ে আছে সিংহ ভাগ কাজ, তাই হতাশ এলাকাসী।

কাজ দেখিয়ে দেওয়ায় মাইটিভিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ঐ সব এলাকার জনপ্রতিনিধিরা।

এভাবে মাইটিভি সাধারন মানুষের পাশে থেকে দেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করবে এমন প্রত্যাশা সবার।