মানহীন এ্যম্বুলেন্সে ঝুঁকিতে রোগীর জীবন

0
164

শারমিন আজাদ : জরুরী অবস্থায় রোগীর জীবন রক্ষার একমাত্র বাহন এ্যম্বুলেন্স। মটরসাইকেল থেকে শুরু করে এ্যম্বুলেন্স হিসেবে বিশ্বে বিমান পর্যন্ত ব্যবহৃত হচ্ছে রোগী পরিবহনে। বাংলাদেশেও এর ব্যত্য়য় নেই। তবে সারাদেশে নেই রোগীর পরিবহনে মান সম্মত এ্যম্বুলেন্স। ফলে এ্যম্বুলেন্সেই মৃত্যু হতে পারে সাধারণ রোগীর।

রোগীর জীবন রক্ষাকারী বাহন। মুমুর্ষু কিংবা বড় ধরণের অসুখে আক্রান্ত রোগীকেই সাধারণত বহন করা হয় অ্যাম্বুলেন্সে। সেখানে, রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকা জরুরি একটি। অথচ সেই এএ্যম্বুলেন্সে একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়া আর কোন ব্যবস্থা নেই। অক্সিজেন সিলিন্ডারটি পরিচালনার জন্য কোন নার্সও থাকে না দেশের এ্যম্বুলেন্স গুলোতে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের যানবাহন শাখার জানায়, ইমার্জেন্সি থেকে ৪টি এ্যম্বুলেন্স ছেড়ে যায় রোগী নিয়ে। অথচ এই হাসপাতালে রোগী থাকে ১২ শ’র বেশি।

তবে এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে খুব বেশি রোগী অন্যত্র পাঠাতে হয় না, তাই তাদের এ্যম্বুলেন্স সংখ্যা কম।

এই যখন অবস্থা সরকারি হাসপাতালগুলোর তখন কয়েকটি ব্যয়বহুল হাসপাতাল নিজস্ব ব্যবস্থায় শুধু তাদের রোগীদেও জন্য আইসিইউ এ্যম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করেছে। সেখানে থাকে স্যালাইনসহ নার্স বা ডাক্তারের সুবিধা। তবে বেসরকারি এ্যম্বুলেন্স সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো জানায়, ব্যয়বহুল হওয়ায় আইসিইউ এ্যম্বুলেন্স হাতে গোনা কয়েকটি।

অর্থনৈতিকভাবে আইসিইউ এ্যম্বুলেন্স ব্যবহারের যোগ্য নয় বাংলাদেশ, এমন মন্তব্য করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
স্বাস্থ্য সেবার উন্নতিতে এ্যম্বুলেন্স চলাচলে আলাদা কোন লেনের ব্যবস্থাও নেই সড়কগুলোতে।

এ বিষয়েও কোন উদ্যোগ নেওয়ার পরিকল্পনা নেই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের। রোগীদের ভরসা তাই হাজার টাকার বেশি গুণে চলাচল করা বেসরকারি এ্যম্বুলেন্স গুলো।