ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা তিন জয় বাংলাদেশের; জিম্বাবুয়েকে ৯১ রানের বড় ব্যবধানে হারালো টাইগাররা

0
138

ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিল বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে জয়টা এসেছে ৯১ রানে। মিরপুরে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে ২১৬ রান সংগ্রহ করে টাইগাররা।

জবাবে স্বাগতিক বোলারদের তোপে, ১২৫ রানেই অল-আউট হয় জিম্বাবুয়েনরা। অল-রাউন্ড পার্ফমেন্স করে টানা তিন ম্যাচেই নিজের জাত চেনান সাকিব আল হাসান।  আর ম্যাচ সেরা হয়েছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল

ব্যাটিং ব্যর্থতায় স্কোরটা খুব বেশি বড় হয়নি বাংলাদেশের। বোলিংয়ে তাই ভালো শুরুর অপেক্ষায় ছিল স্বাগতিকরা। মাশরাফি ও সাকিবের চমৎকার বোলিংয়ে সেটা পেয়েছে বাংলাদেশ। তাদের আঘাতে জিম্বাবুয়ে ৩৪ রানেই হারায় ৪ উইকেট।

জিম্বাবুয়ের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকা এই ওপেনার মাত্র ৫ রান করে ধরা পড়েন সাব্বির রহমানের হাতে। মাশরাফির বাউন্সের সঙ্গে সুইং করা বলটা মাসাকাদজার ব্যাটের কানায় লেগে ভাসতে ভাসতে তালুবন্দী হয় সাব্বিরের।

ওই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগেই আবার আঘাত। এবার ঘূর্ণিতে সাকিব বোকা বানান সোলোমন মীরকে। বোল্ড করে এই ওপেনারকে প্যাভিলিয়নে ফেরান বাংলাদেশি অলরাউন্ডার। যাওয়ার আগে মীর করেন মাত্র ৭ রান।

সাকিব ঝড় থামেনি, পরের বলেই আবার উইকেট। এবার ফেরান তিনি ব্রেন্ডন টেলরকে। মুখোমুখি হওয়া নিজের প্রথম বলেই এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন এই উইকেটরক্ষক। প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি খালি হাতে।

মাশরাফি-সাকিবের পর উইকেট উৎসবে নাম লেখালেন সানজামুল ইসলাম। এই স্পিনারের জোড়া আঘাতে বিধ্বস্ত জিম্বাবুয়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ২১৬/৯ (তামিম ৭৬, এনামুল ১, সাকিব ৫১, মুশফিক ১৮, মাহমুদউল্লাহ ২, সাব্বির ৬, নাসির ২, মাশরাফি ০, সানজামুল ১৯, মুস্তাফিজ ১৮*, রুবেল ৮*; জার্ভিস ৩/৪২, চাতারা ১/৩৩, মুজারাবানি ০/৩৬, রাজা ১/৩৯, ক্রিমার ৪/৩২, ওয়ালার ০/৩২)।

জিম্বাবুয়ে: ৩৬.৩ ওভারে ১২৫ (মাসাকাদজা ৫, মিরে ৭, আরভিন ১১, টেইলর ০, রাজা ৩৯, মুর ১৪, ওয়ালার ০, ক্রিমার ২৩, জার্ভিস ১০, চাতারা ৮, মুজারাবানি ০*; সাকিব ৩/৩৪, মাশরাফি ২/২৯, সানজামুল ২/২৮, মুস্তাফিজ ১/১৬, রুবেল ১/১৮)।

ফল: বাংলাদেশ ৯১ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: তামিম ইকবাল